রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ১২:১২ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
দেবিদ্বারে এলজিসহ ডাকাত সদস্য গ্রেফতার বিদেশের বাজারেও চাহিদা ধরে রেখেছে কুমিল্লার লতি দেবিদ্বারের ধামতী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান কার্যালয়ে যেতে পারছেন না - পুলিশ সুপার ও বিভাগীয় কমিশনারের কাছে লিখিত অভিযোগ কাভার্ডভ্যানকে ধাক্কা দিয়ে গরুবাহী ট্রাক উল্টে লাকসামের ব্যাপারীসহ দুই জন নিহত এসএসসির উত্তরপত্র পুনর্নিরীক্ষণ : কুমিল্লা শিক্ষাবোর্ডে ৭৮১ জনের ফলাফল পরিবর্তন কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে কিশোরী ধর্ষণের দায়ে কসমেটিকস দোকানির যাবজ্জীবন কারাদণ্ড কুমিল্লায় মেধা অন্বেষণে ‘ছাত্রী সংঘ’ সিনেমার জন্য ২৫ অভিনয়শিল্পী নির্বাচিত কুমিল্লার দেবিদ্বারে প্রতিপক্ষের হামলায় গুরুতর আহত হয়েও মেডিকেল রিপোর্টে ‘নরমাল’, ন্যায় বিচার নিয়ে শঙ্কিত কমবে উৎপাদন খরচ ও সময় ।। মুরাদনগরে সমলয় পদ্ধতিতে ধানের চারা রোপণ শুরু মুরাদনগরে গ্রাম পুলিশের ওপর সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন সমিতির সদস্য পথ হারালো কুবির তিন শিক্ষক চান্দিনা পৌর এলাকার রাস্তাঘাটের বেহালদশা, জনদুর্ভোগ চরমে মুরাদনগরে মদ খেয়ে মাতলামি, পাঁচ দিনের কারাবাস নাঙ্গলকোটে অটোরিকশা চালক হত্যাকারীদের ফাঁসির দাবিতে মানববন্ধন মুরাদনগরে কৃষক ও উদ্যোক্তা প্রশিক্ষণ কর্মশালা সম্পন্ন হাসেম-ইলিয়াসের নেতৃত্বে বরুড়া প্রেসক্লাবের কমিটি গঠন বিজয়নগর উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থীর গাড়ি চালকের ওপর হামলার অভিযোগ চান্দিনা প্রেসক্লাবের আহ্বায়ক কমিটি গঠন কুমিল্লা জেলা ক্রীড়া সংস্থার কার্যনির্বাহী পরিষদের নির্বাচন সম্পন্ন, সাধারণ সম্পাদক পদে রোমেন পুনর্নির্বাচিত বরুড়ায় বিশ্ব তামাক মুক্ত দিবস পালিত

করোনা টেস্ট প্রতারণায় ডা. সাবরিনা গ্রেফতার

প্রতিসময় ডেস্ক
  • আপডেট টাইম মঙ্গলবার, ২১ জুলাই, ২০২০
  • ২৮৭ দেখা হয়েছে

জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালের চিকিৎসক ও জেকেজি হেলথকেয়ারের চেয়ারম্যান ডা. সাবরিনা আরিফকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

রোববার (১২ জুলাই) দুপুরে তাকে তেজগাঁও বিভাগীয় উপ-পুলিশ (ডিসি) কার্যালয়ে এনে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে গ্রেফতার করে পুলিশ।

করোনা ভাইরাস টেস্টের নামে জেকেজি হেলথ কেয়ারের প্রতারণার সঙ্গে ডা. সাবরিনার সংশ্লিষ্টতার প্রমাণ পাওয়ায় পুলিশ তাতে গ্রেফতার করে।

বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত তথ্যে জানা যায়, ডা. সাবরিনার জেকেজি হেলথ কেয়ার এ পর্যন্ত ২৭ হাজার রোগীর করোনার টেস্টের রিপোর্ট দেয়। এর মধ্যে ১১ হাজার ৫৪০ জনের করোনার নমুনার আইইডিসিআরের মাধ্যমে সঠিক পরীক্ষা করানো হয়েছিল। বাকি ১৫ হাজার ৪৬০ রিপোর্ট তারা নিজেরা তৈরি করেছে। জেকেজির ৭-৮ জন কর্মী মিলে ভুয়া এসব রিপোর্ট তৈরি করে।

রোগীদের ১০টি প্রশ্ন দেয়া হতো। এর মধ্যে ৫টির বেশি প্রশ্ন করোনা উপসর্গের সঙ্গে মিলে যেত তাকে করোনা পজিটিভ রিপোর্ট দেয়া হতো। অন্যদের দেয়া হতো নেগেটিভ রিপোর্ট। এভাবেই চলছিল করোনা পরীক্ষার নামে প্রতারণা।

Last Updated on July 21, 2020 3:38 pm by প্রতি সময়

শেয়ার করুন
এই ধরনের আরও খবর...

বিস্তারিত জানতে ছবিতে ক্লিক করুন।

themesba-lates1749691102