শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ০৯:১৬ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
বিদেশের বাজারেও চাহিদা ধরে রেখেছে কুমিল্লার লতি দেবিদ্বারের ধামতী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান কার্যালয়ে যেতে পারছেন না - পুলিশ সুপার ও বিভাগীয় কমিশনারের কাছে লিখিত অভিযোগ কাভার্ডভ্যানকে ধাক্কা দিয়ে গরুবাহী ট্রাক উল্টে লাকসামের ব্যাপারীসহ দুই জন নিহত এসএসসির উত্তরপত্র পুনর্নিরীক্ষণ : কুমিল্লা শিক্ষাবোর্ডে ৭৮১ জনের ফলাফল পরিবর্তন কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে কিশোরী ধর্ষণের দায়ে কসমেটিকস দোকানির যাবজ্জীবন কারাদণ্ড কুমিল্লায় মেধা অন্বেষণে ‘ছাত্রী সংঘ’ সিনেমার জন্য ২৫ অভিনয়শিল্পী নির্বাচিত কুমিল্লার দেবিদ্বারে প্রতিপক্ষের হামলায় গুরুতর আহত হয়েও মেডিকেল রিপোর্টে ‘নরমাল’, ন্যায় বিচার নিয়ে শঙ্কিত কমবে উৎপাদন খরচ ও সময় ।। মুরাদনগরে সমলয় পদ্ধতিতে ধানের চারা রোপণ শুরু মুরাদনগরে গ্রাম পুলিশের ওপর সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন সমিতির সদস্য পথ হারালো কুবির তিন শিক্ষক চান্দিনা পৌর এলাকার রাস্তাঘাটের বেহালদশা, জনদুর্ভোগ চরমে মুরাদনগরে মদ খেয়ে মাতলামি, পাঁচ দিনের কারাবাস নাঙ্গলকোটে অটোরিকশা চালক হত্যাকারীদের ফাঁসির দাবিতে মানববন্ধন মুরাদনগরে কৃষক ও উদ্যোক্তা প্রশিক্ষণ কর্মশালা সম্পন্ন হাসেম-ইলিয়াসের নেতৃত্বে বরুড়া প্রেসক্লাবের কমিটি গঠন বিজয়নগর উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থীর গাড়ি চালকের ওপর হামলার অভিযোগ চান্দিনা প্রেসক্লাবের আহ্বায়ক কমিটি গঠন কুমিল্লা জেলা ক্রীড়া সংস্থার কার্যনির্বাহী পরিষদের নির্বাচন সম্পন্ন, সাধারণ সম্পাদক পদে রোমেন পুনর্নির্বাচিত বরুড়ায় বিশ্ব তামাক মুক্ত দিবস পালিত দেশপ্রেমিক ও স্মার্ট নাগরিক গড়ে তুলতে স্কাউট আন্দোলন এগিয়ে যাচ্ছে : অধ্যক্ষ মহিউদ্দিন লিটন

কুমিল্লার তিন উপজেলায় দশদিনে পানিতে ডুবে প্রাণ গেল দশ শিশুর 

প্রতিসময় রিপোর্ট
  • আপডেট টাইম বুধবার, ১০ আগস্ট, ২০২২
  • ৯০ দেখা হয়েছে
# প্রতীকী ছবি।
কুমিল্লায় পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু ঘটনা বেড়েই চলছে। অভিভাবকদের অসচেতনতা ও বাড়ির আশপাশে পুকুর-ডোবায় প্রতিরোধ ব্যবস্থা না থাকায় পানিতে ডুবে শিশু মৃত্যুর ঘটনা ঘটছে বলে অভিমত পোষণ করেছেন বিশেষজ্ঞরা।

গত ১০ দিনে জেলার ব্রাহ্মণপাড়া, চৌদ্দগ্রাম ও বরুড়া উপজেলায় পানিতে ডুবে প্রাণ হারিয়েছে দশ শিশু। তাদের বেশির ভাগই বেড়াতে গিয়ে অভিভাবকের চোখ ফাঁকি দিয়ে খেলতে গিয়ে পানিতে পরে যায়। পরে নিখোঁজ হলে তাদেরকে পুকুর বা ডোবা থেকে মৃত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়।

কুমিল্লার ওইসব উপজেলা থেকে প্রাপ্ত তথ্যে জানা গেছে, ৮ আগষ্ট দুপুরে ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলার মহালক্ষীপাড়া গ্রামে পুকুরের পানিতে ডুবে মোরশেদ আলমের লামিয়া আক্তার নামের দেড়বছর বয়সী কন্যাশিশুর মৃত্যু হয়।একই দিন দুপুর ২টার দিকে কুমিল্লার বরুড়ায় পানিতে ডুবে প্রিয়া দাস নামে ৭ বছর বয়সি এক শিশু মারা যায়। ৫ আগষ্ট ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলায় শশীদল ইউনিয়নের নাগাইশ গ্রামে নানার বাড়িতে বেড়াতে এসে ফাইজান নামে ১১ বয়সী এক শিশু প্রাণ হারায়। ২ আগষ্ট বরুড়া উপজেলার খোশবাস ইউনিয়নে পানিতে ডুবে প্রাণ হারায় ৪ বছর বয়সী ইসমাইল এবং ৬ বছর বয়সী রোজা। তারা দু’জনে মামাতো-ফুপাতো ভাই-বোন। ২৮ জুলাই চৌদ্দগ্রাম উপজেলার বাতিসা ইউনিয়নের সোনাপুর দক্ষিণ পাড়া গ্রামে পানিতে ডুবে মৃত্যুবরণ করে দুই শিশু। তারা হচ্ছে সোনাপুর গ্রামের বেলাল হোসেনের ছেলে আবদুর রহমান ফাওয়ায়েজ (৮) ও একই বাড়ির জালালের ছেলে ফাহমিদ (৮)। বাড়ির পাশের পুকুরে গোসল করতে নেমে তাদের মৃত্যু হয়। একই দিন বিকেলে চৌদ্দগ্রাম উপজেলার বাতিসা ইউনিয়নের লুদিয়ারা গ্রামের মঞ্জুরি খালে ডুবে তানভীর নামে এক শিশুর মৃত্যু হয়। ২৯ জুলাই ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলার চান্দলা ইউনিয়নে তাইয়েবা নামে এক শিশু পানিতে ডুবে মারা যায়।

কুমিল্লা ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের সহকারী পরিচাল আখতারুজ্জামান জানান, পানিতে ডুবে শিশু মৃত্যু ঠেকাতে সচতেনতার কোন বিকল্প নেই। কোথাও বেড়াতে গেলে বাবা- মাকে খুব বেশি সচেতন থাকতে হবে। যেন শিশুরা একা একা খেলতে গিয়ে দৃষ্টির বাইরে চলে না যায়। যেহেতু এই সময়ে পানিতে ডুবে শিশু মৃত্যুর হার বাড়ছে। আমরা নিয়মিত সচেতনতা কার্যক্রমের অংশ হিসেবে শনিবার থেকে প্রতি উপজেলায় সচেতনতামূলক প্রচারণা শুরু করার পরিকল্পনা নিয়েছি।

পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যুর ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করে স্বজন ও অভিভাবকদের সচেতন থাকার পরামর্শ দিয়েছেন কুমিল্লার শিশুরোগ বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক ইকবাল আনোয়ার। তিনি বলেন, শিশুর অভিভাবক ও স্বজনদের সতর্ক থাকবে হবে এবং তাদের দিকে নজর রাখতে হবে। শিশুদেরকে পুকুর ডোবা কিংবা জলাশয়ের পাশে খেলাধুলা থেকে বিরত রাখতে হবে এবং পুকুরে গোসল করতে যাওয়ার সময় অভিভাবকদের পাশে থাকতে হবে।
ডা. ইকবাল আনোয়ার আরে বলেন, এক্ষেত্রে শিশুদের দিনের বেলায় তত্ত্বাবধানে রাখতে ডে কেয়ার স্থাপন, জলাশয়ের আশেপাশে বেড়া দেয়ার পাশাপাশি প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করা, স্কুল থেকে শুরু করে কমিউনিটি পর্যায় সাতার শেখা বাধ্যতামূলক করা, কুসংস্কার এড়িয়ে চলা এবং সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হলো কেউ ডুবলেও তাকে উদ্ধারের পরপর তার শ্বাস ও হার্ট চালু করার যেসব প্রাথমিক উদ্যোগ আছে সেগুলো মানুষকে শেখানো।তাই যারা উদ্ধার করেন তাদের যদি প্রাথমিক ওই জ্ঞান থাকে তাহলে অনেক শিশুই বেঁচে যাবে।

Last Updated on August 10, 2022 8:00 pm by প্রতি সময়

শেয়ার করুন
এই ধরনের আরও খবর...

বিস্তারিত জানতে ছবিতে ক্লিক করুন।

themesba-lates1749691102