বুধবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২২, ০৮:৩৯ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
কুমিল্লার তিতাসে দুইপক্ষের সংঘর্ষে একজন নিহত কুমিল্লার মনোহরগঞ্জে রেলক্রসিং পারাপারের সময় ট্রেনের ধাক্কায় সিএনজি অটোরিকসার চার যাত্রী নিহত শেখ মনি’র জন্মদিনে কুমিল্লায় মাদ্রাসা শিক্ষার্থীরা পেল শীতবস্ত্র কিশোরগঞ্জ বুড়িচংয়ের ময়নামতিতে বাস-সিএনজি সংঘর্ষে ১ জন নিহত কুমিল্লা শিক্ষাবোর্ডের মহান বিজয় দিবসের মাসব্যাপী কর্মসূচির উদ্বোধন চৌদ্দগ্রামে কলেজ শিক্ষার্থী হত্যার ঘটনায় আটক ৪ মেসি জাদুতে কোয়ার্টার ফাইনালে আর্জেন্টিনা লালমাই দুই ইউপি নির্বাচনে ১১১ জনের প্রার্থীতা বৈধ কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন ৮ ডিসেম্বর দেবিদ্বারে ছাত্রলীগের কমিটিতে কিশোর গ্যাং সদস্য! কুবি শিক্ষকের বিরুদ্ধে সহকারী প্রক্টরকে লাঞ্ছনার অভিযোগ বীর মুক্তিযোদ্ধা সংস্কৃতিজন ও ছড়াকার জহিরুল হক দুলালের সুস্থতা কামনায় দোয়া ও মিলাদ  কুমিল্লা নগরীর বিসিক এলাকা থেকে ইয়াবা ও দেশীয় অস্ত্রসহ চারজন গ্রেফতার কুমিল্লায় বন্ধুকে খুনের দায়ে একজনের মৃত্যুদণ্ড চৌদ্দগ্রামে ব্যাডমিন্টন খেলা নিয়ে সংঘর্ষে প্রাণ গেল কলেজ ছাত্রের কুমিল্লার দেবিদ্বারে আমিরুন নেছা ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে শীত বস্ত্র বিতরণ কুমিল্লা জেলা পুলিশের ব্যতিক্রমী উদ্যোগ : পাসপোর্ট সেবা গ্রহীতাদের জন্য চালু হলো ‘ক্ষুদে বার্তা’ সেবা ব্রাহ্মণপাড়ায় বাইপাস সড়কসহ তিনটি প্রকল্পের উদ্বোধন কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির নির্বাচনে হট্টগোল সদর দক্ষিণে গাঁজাসহ দুই মাদক কারবারি আটক

কুমিল্লার নিশ্চিন্তপুরের হাজী মার্কেটে আগুনে পুড়ে ছাই ৭১টি মোটরসাইকেল

মো. জাকির হোসেন, স্টাফ রিপোর্টার-কুমিল্লা
  • আপডেট টাইম রবিবার, ১৪ মার্চ, ২০২১
  • ১৬৬ দেখা হয়েছে

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের পাশে ময়নামতি সেনানিবাসের অনতিদূরে কুমিল্লা সদর উপজেলার নিশ্চিন্তপুর এলাকায় হাজী মার্কেট মোটরসাইকেল বড় বিক্রয়স্থল হিসেবেই পরিচিত। হাজী মার্কেটের দোকানগুলোতে নতুন মোটরসাইকেল বিক্রি ছাড়াও রয়েছে মটরপার্সের দোকান।

শনিবার দিবাগত রাত পৌনে তিনটার দিকে এ মার্কেটে বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিট থেকে আগুনে পুড়ে যায় ২৮টি দোকান। এসব দোকানের মধ্যে বেশ কটি দোকানে থাকা প্রায় ৭১টি মোটরসাইকেল সম্পূর্ণ পুড়ে গেছে।

রবিবার (১৪ মার্চ) ভোর সাড়ে ৪টায় ফায়ার সার্ভিসের পাঁচটি ইউনিট আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। ততক্ষণে দোকনিদের কয়েক কোটি টাকার মালামাল পুড়ে ছাই। কেবল তাই নয়-পুড়ে গেছে অনেক মূল্যবান, প্রয়োজনীয় কাগজপত্র।ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ তাৎক্ষণিকভাবে নির্নয় করা সম্ভব হয়নি। তবে ক্ষতিগ্রস্থ ব্যবসায়ীদের মতে, ক্ষতির পরিমাণ ৩ কোটি থেকে ৪ কোটি টাকা হবে।

সোমবার  অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্থ এলাকা সরজমিনে পরিদর্শনে যাবেন কুমিল্লা মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহার এমপি।

কুমিল্লা সদরের ক্যান্টনমেন্ট মার্কেট সংলগ্ন নিশ্চিন্তপুর (নামার বাজার) এলাকার বৃহত্তর হুন্ডা মার্কেট ‘হাজি মার্কেট ’ শনিবার দিবাগত রাতের আগুনে পুড়ে গোটা মার্কেটের পেছনের অংশটি এখন কেবলই ধ্বংসস্তুপ। পোড়া দোকানগুলোর সাথে পুড়ছে ব্যবসায়ীদের স্বপ্ন আশা ও জীবিকার একমাত্র অবলম্বন।  রবিবার ভোর থেকে দিনভর ব্যবসায়ীদের হাহাকারে পরিবেশ ভারী হয়ে উঠে।

শনিবার দিবাগত রাত আনুমানিক আড়াইটায় চৌধুরী মটরসে বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত হয় বলে ধারনা করা হচ্ছে।  নৈশ প্রহরী অগ্নিকান্ডের বিষয় টের পেয়ে খবর দিলে ব্যবসায়ী ও স্থানীয়রা এগিয়ে আসে। সেনাবাহিনী ও ফায়ার সার্ভিসের ৫টি ইউনিট প্রায় ২ ঘন্টার আপ্রাণ চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনলেও ততক্ষণে পুড়ে ছাই হয়ে যায় ২৮টি দোকান। তবে এতে হতাহতের কেন ঘটনা ঘটেনি বলে জানা গেছে। প্রায় প্রতিটি দোকানেই দাহ্য পদার্থ থাকায় আগুনের তীব্রতাও অনেক বেশি ছিলো বলে জানায় প্রত্যক্ষদর্শীরা। কিছুক্ষণ পরপর মোটরসাইকেল এর তেলের টাংকি বিস্ফোরণের শব্দে গোটা এলাকা আতংক ছড়িয়ে পরে। ভোর ৬টায় পুরোপুরি নিয়ন্ত্রনে আসে মার্কেটের আগুন। এসময় ব্যবসায়ীদের কান্নায় ভারী হয়ে ওঠে মার্কেটের আশপাশের এলাকা।

ক্যান্টনমেন্ট পুলিশ ফাঁড়ির ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইন্সপেক্টর মাহমুদুর রহমান রুবেল বলেন, একটি দোকানে ব্যাটারি চার্জ দেয়া ছিল। ধারণা করা হচ্ছে, ওই দোকান থেকে আগুন লেগে তা কিছু সময়ের মধ্যে পাশের ২৫/২৬টি দোকানে ছড়িয়ে পড়ে। কয়েকটি দোকানে জ্বালানি তেল থাকায় আগুন তীব্র আকার ধারণ করে। তিনি আরও বলেন, খবর পেয়ে কুমিল্লা, ইপিজেড, চান্দিনা, সদর দক্ষিণ ও মুরাদনগর ফায়ার সার্ভিসের পাঁচটি ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌঁছে রবিবার ভোর সাড়ে ৪টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ তাৎক্ষণিকভাবে জানা সম্ভব হয়নি।

কুমিল্লা ফায়ার সার্ভিস সিভিল ডিফেন্স’র উপ-পরিচালক জসিম উদ্দিন বলেন, শর্ট সার্কিট থেকে আগুনের সুত্রপাত হতে পারে।

আগুনে চৌধুরী মটরস,ক্যান্টনমেন্ট বাজাজ, তাহের মটরস, নজির মটরস, নাহার মটরস, ভূইয়া মটরস, হোসেন মটরস, গ্রামীন মটরস, মেহের মটরস ও মধুর ক্যান্টিনসহ ২৮টি দোকান পুড়ে যায়।

এদিকে এসব দোকানে বিভিন্ন ব্র্যান্ডের মোটরসাইকেল, কিস্তিতে মোটরসাইকেল বিক্রির প্রয়োজনীয় কাগজপত্র ও বিভিন্ন যানবাহনের পার্টস পুড়ে গিয়ে ব্যাপক ক্ষতির মুখে পড়েন ব্যবসায়িরা। খবর পেয়ে প্রথমে কুমিল্লা থেকে পরে কুমিল্লা সদর দক্ষিণ ও চান্দিনা থেকে মোট ১০ ইউনিট অগ্নিনির্বাপক গাড়ি এসে প্রায় ৩ ঘন্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রনে আনতে সক্ষম হয়।

ক্ষতিগ্রস্থ চৌধুরী মটরসের মালিক সোহেল চৌধুরী জানান, দোকানে ১০টি নতুন মোটরসাইকেলসহ দুইশো মোটরসাইকেল বিক্রির কাগজপত্রসহ মুল্যবান পার্টস আগুনে পুড়ে গেছে। এতে প্রায় ৩৫ লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। নাহার মটরসের মালিক পলাশ জানান, আগুনে দোকানের ৩৪টি মোটরসাইকেলসহ ক্ষয়ক্ষতির পরিমান প্রায় ৭০ লাখ টাকা। মেহের মটরসের ২৭টি মোটরসাইকেল আগুনে পুড়ে গেছে।

এদিকে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডের খবর পেয়ে রবিবার দুপুরে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন আদর্শ সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট মো.আমিনুল ইসলাম টুটুল, কোতোয়ালি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আনোয়ারুল হক, ২নং উত্তর দূর্গাপুর উত্তর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ, আদর্শ সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক আহাম্মেদ নিয়াজ পাবেল প্রমুখ। এসময় উপজেলা পরিষদের পক্ষ থেকে ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ীদের শান্তনা ও  সহায়তার আশ্বাস প্রদান করেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট টুটুল।

# দেশ-বিদেশের গুরুত্বপূর্ণ খবর জানতে প্রতিসময় (protisomoy) ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।  

Last Updated on March 14, 2021 8:58 pm by প্রতি সময়

শেয়ার করুন
এই ধরনের আরও খবর...

বিস্তারিত জানতে ছবিতে ক্লিক করুন।

themesba-lates1749691102