বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১০:৫০ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের গেস্টহাউজ ‘দখলদারিত্ব’ মুক্ত চায় শিক্ষক সমিতি কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাত শিক্ষকের বিরুদ্ধে থানায় জিডি করলেন ডেপুটি রেজিষ্ট্রার কুমিল্লার তিতাসে স্বর্ণের দোকানে ডাকাতির ঘটনায় আরো দুই জন গ্রেফতার নোবিপ্রবিতে সম্মেলন শুরু ছায়া জাতিসংঘের # বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের ২২০ শিক্ষার্থীর অংশগ্রহণ শান্তি ও সৌহার্দ্যের শহর হবে কুমিল্লা নগরী : মেয়র প্রার্থী তানিম প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাহসী নেতৃত্বে দ্রুতগতিতে এগিয়ে যাচ্ছে দেশ : জাহাঙ্গীর আলম সরকার এমপি নতুন প্রজন্মের মাঝে মহান একুশের গুরুত্ব ও চেতনা জাগিয়ে তুলতে হবে : আঞ্চলিক পরিচালক-বাউবি বরুড়ায় ব্র্যাকের ৭০টি উপানুষ্ঠানিক শিখন কেন্দ্রে নিজেদের তৈরি শহীদ মিনারে ফুলেল শ্রদ্ধা আজ ২১শে ফেব্রুয়ারি, অন্যায়ের বিরুদ্ধে মাথা নত না করার দুর্দম সাহসের উৎস এম এ জাহের ফাউন্ডেশনের শিক্ষা বৃত্তি পেল মেধাবী শিক্ষার্থীরা কুমিল্লা জেলা আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে মনোনয়নপত্র জমা দিল সম্মিলিত আইনজীবী সম্বন্বয় পরিষদ # লিটন সভাপতি জাহাঙ্গীর সাধারণ সম্পাদক চৌদ্দগ্রামে ৫৪ কেজি গাঁজাসহ একজন আটক কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে দীর্ঘ হচ্ছে পদত্যাগের তালিকা শিক্ষক হেনস্তার ঘটনায় কুবির দুই কর্মকর্তা ও সাবেক শিক্ষার্থীদের বিরুদ্ধে থানায় জিডি কুবি শিক্ষক সমিতির সভাপতি তাহের সম্পাদক মেহেদি # নীল দলের নিরঙ্কুশ জয় কুমিল্লা আইডিয়াল কলেজে ইয়ুথ চেঞ্জ সোসাইটি বাংলাদেশের স্পিক টু লিড সেমিনার অনুষ্ঠিত বরুড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আয়োজনে মিলনমেলা ও বসন্ত উৎসব ব্রাহ্মণপাড়ায় ৬৪ কেজি গাঁজাসহ দুই মাদক কারবারি গ্রেফতার কুমিল্লায় বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির ৫০ বছর পূর্তি উদযাপন কুবি শিক্ষক সমিতির নির্বাচন সোমবার

কুমিল্লায় নিম্নমানের জীবানুনাশক পণ্যের পসরা

সাদিক মামুন
  • আপডেট টাইম শুক্রবার, ১৪ আগস্ট, ২০২০
  • ৪০০ দেখা হয়েছে

করোনাভাইরাস ছোঁয়া থেকে বাঁচতে চাহিদা তুঙ্গে জীবাণুনাশক পণ্যের। ফার্মেসির দোকানে এখনো হেক্সিসল-হ্যান্ডরাব, ডেটল, স্যাভলন লিকুইড চাহিদামতো মিলছেনা। বাংলাদেশে করোনা ভাইরাসে প্রথম শনাক্তের ঘোষণা দেয়া হয়েছিলো ৮ই মার্চ। এরপর থেকে বেড়েই চলেছে জীবাণুনাশক পণ্যের চাহিদা।

কিন্তু এ চাহিদাকে পুঁজি করে মানহীন জীবাণুনাশক হ্যান্ড স্যানিটাইজার ও লিকুইড অ্যান্টিসেপটিক এবং নি¤œমানের মাস্ক, পিপিই, গগলস, গøাভস পণ্য সামগ্রী মিলছে কুমিল্লা নগরীর ফুটপাত থেকে শুরু করে স্টেশনারী ও প্রসাাধনী দোকানে। স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা বলছেন এসব ব্যবহারে রয়েছে ফলস সেপটির হাতছানি। যাতে সংক্রমণ আরও বেশি হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। আবার ফার্মেসিতে স্যাভলন, ডেটলের দাম পণ্যের গায়ে উল্লেখিত দামের চেয়ে ৩০গুন বেশি রাখছে। এমন অভিযোগসোধারণ ক্রেতাদের।

কুমিল্লা নগরীর কান্দিরপাড়, রামঘাট, টমসনব্রীজ, রাজগঞ্জ, পুলিশলাইন, চকবাজার, কাপড়িয়াপট্টি, রাণীরবাজার ও শাসনগাছা এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, ফুটপাতে হ্যান্ড স্যানিটাইজার, মাস্কসহ নানা ধরণের সুরক্ষা সামগ্রীর পসরা সাজিয়ে বসে আছেন বিক্রেতারা। বোতল ও রঙ দেখে তাৎক্ষণিকভাবে আসল ও নকল জীবাণুনাশক পণ্যের পার্থক্য বোঝার উপায় নেই। আবার স্টেশনারী দোকানেও নামিদামি কম্পানির হ্যান্ড স্যানিটাইজার ও জীবাণুনাশক পণ্যের জায়গা দখলে নিয়েছে অখ্যাত কিছু প্রতিষ্ঠানের বানানো পণ্য।

ফুটপাতে হ্যান্ড স্যানিটাইজারের বোতলের গায়ে যে দাম উল্লেখ রয়েছে তার অর্ধেকের কম দামেও বিক্রি হচ্ছে। আবার ডেটলের কাঁচের আসল বোতলে নকল লিকুইড ১৫/২০টাকায় বিক্রি হচ্ছে। আসল স্যাভলনের মতো দেখতে সেভলন, সেভলো, সেভোলন নামে ফ্যামেলী সাইজের ১০০০মিলির বোতলের লিকুইড অ্যান্টিসেপটিক মিলছে কমদামে। আর কম দামে পাওয়ায় ভোক্তারাও কিনছে দেদারসে।

এদিকে নি¤œমানের মাস্কও পাওয়া যাচ্ছে ফুটপাতে। এগুলো দিয়ে নিঃশ্বাস নিঃসরণ না হওয়ায় উল্টো শ্বাসকষ্টের সমস্যা দেখা দেয়। এছাড়া মুখে এক ধরনের উটকু গন্ধ ছড়িয়ে পড়ে।

হার্টকেয়ার ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা ও সভাপতি হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ ডা. তৃপ্তীশ চন্দ্র ঘোষ বলেন, সংক্রমণ ঝুঁকি এড়ানোর জন্য রাস্তাঘাটে, ফুটপাত থেকে জীবন রক্ষাকারি ওষুধ, জীবাণুনাশক পণ্য কেনা যাবে না। নকল, মানহীন জীবাণুনাশক ও সুরক্ষা পণ্য ব্যবহারের কারণে করোনাভাইরাস প্রতিরোধ তো দূরের কথা, সংক্রমণ আরও বেশি হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। কেননা যারা ব্যবহার করছেন তারা ভাবছেন সুরক্ষিত আছেন। কিন্তু তিনি বা তার পরিবার একটা ফলস ভাবনায় রয়েছেন। যা সংক্রমিত হওয়ার সম্ভাবনা বাড়িয়ে দিচ্ছে। তাই এসময়ে মানুষকে অনেক বেশি সচেতন হতে হবে।

প্রশাসনের মনিটরিং বাড়ানোর তাগিদ দিয়ে কনজ্যুমার এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ, কুমিল্লা শাখার সাধারণ সম্পাদক মাহবুব মোর্শেদ বলেন, নতুন গজিয়ে উঠা বা লোকাল ব্র্যান্ডের জীবাণুনাশক পণ্যগুলো স্যানিটাইজারের ফর্মুলা মেনে তৈরি করছে কি না, সেটা নিয়ে আমরা সন্দিহান। মানুষকে জিম্মি করে সংকটে ফেলে ব্যবসা করে অতি মুনাফা করার যে প্রক্রিয়া চলছে এটা বন্ধ হওয়া উচিত। স্বাস্থ্য সুরক্ষার বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে এক্ষেত্রে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ ও প্রশাসনের ভ্রাম্যমান আদালতের নজরদারি প্রয়োজন।

Last Updated on August 14, 2020 6:42 am by প্রতি সময়

শেয়ার করুন
এই ধরনের আরও খবর...

বিস্তারিত জানতে ছবিতে ক্লিক করুন।

themesba-lates1749691102