সোমবার, ৩০ জানুয়ারী ২০২৩, ০৬:১৩ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
মুরাদনগরের সবুজ ১১৩৬ বোতল বিদেশী মদসহ কুমিল্লা নগরীর টমছমব্রীজে আটক কুমিল্লা নগরীর ঠাকুরপাড়ায় ডাস্টবিনে নবজাতকের লাশ দাউদকান্দিতে আওয়ামী লীগ নেতার গাড়ি ভাংচুর ও হামলার ঘটনায় মূল আসামী গ্রেফতার ইটভাটার মাটিতে কর্দমাক্ত কুমিল্লা-সিলেট সড়কে ঘটছে দুর্ঘটনা কুমিল্লা নগরীর আনন্দধারা বিদ্যাপীঠে ক্রীড়া প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ কুমিল্লার লালমাই বাজারে চার প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা দাউদকান্দিতে এমপির সেচ্ছাধীন তহবিলের আর্থিক অনুদান পেল অসহায় ও হতদরিদ্র পরিবার আলোকিত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান নজরুল মেমোরিয়াল একাডেমীর বর্ণাঢ্য বার্ষিক ক্রীড়ানুষ্ঠান বুড়িচংয়ে মিথলমা সমাজ কল্যাণ ট্রাস্টের উদ্যোগে দুস্থদের আর্থিক সহায়তা দেবিদ্বারে ইটভাটার ট্রাক্টরে পিষ্ট হয়ে শিশুর মৃত্যু কুমিল্লায় ফেন্সিডিল ও গাঁজাসহ দুই জন আটক মুরাদনগরে বীর মুক্তিযোদ্ধা সন্তান ফাউন্ডেশনের কার্যালয় উদ্বোধন বই মেলায় কুবি শিক্ষকের প্রথম উপন্যাস ‘মহারাজাধিরাজ’ অধুনা থিয়েটারের নাট্যউৎসবের লোগো উন্মোচন অবশেষে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক মুর্শেদ রায়হানকে অব্যাহতি ব্রাহ্মণপাড়ায় মেয়ের জন্য পাত্র দেখতে যাওয়ার পথে সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ গেলো পিতার চৌদ্দগ্রামে ট্রাক চাপায় মোটরসাইকেল আরোহী নিহত দেবীদ্বার উপজেলা আ’লীগের কার্যনির্বাহী কমিটি স্থগিত তজুমদ্দিনে পাঠাভ্যাস উন্নয়ন কর্মসূচির উদ্বুদ্ধকরণ কর্মশালা নগরীর ফুটপাতে কুসিকের উচ্ছেদ অভিযান

প্রাথমিকের শিক্ষার্থী ও অভিভাবকের করণীয়

শিক্ষা-সাহিত্য ডেস্ক
  • আপডেট টাইম শনিবার, ২৮ নভেম্বর, ২০২০
  • ৪৭৯ দেখা হয়েছে

শুরু হয়েছে কোভিড-১৯ এর সেকেন্ড ওয়েব মানে দ্বিতীয় ঢেউ।এবছরের মার্চের মাঝামাঝি সময়ে বন্ধ হওয়া দেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে এখনো ছুটি চলছে। আর প্রায় এক মাস পরই নতুন শিক্ষাবর্ষ শুরু হবে। শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধের পর থেকে বাড়িতে শিক্ষার্থীরা পড়ালেখার বিষয়ে কতটুকু মনোযোগি ছিল, আর অভিভাবকের ভূমিকা কী ছিল ? বছরের এই শেষ সময়ে মূলত এ প্রশ্নই উঠে আসবে শিক্ষার্থী ও তাদের অভিভাবকের জন্য। এখনো এক মাস বাকী। এসময়টাকে ঘরে সন্তানের লেখাপড়ার ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ করে তুলতে হবে।আর শিক্ষার্থীদের করোনার এই দুঃসময়ে দৃঢ় মনোবল নিয়ে অধ্যবসায়ী ও সময়ানুবর্তী হতে হবে।এটি বাস্তবায়নে অভিভাবকের দায়িত্বশীল ভূমিকার বিকল্প কিছু নেই। আর এনিয়ে অনলাইন নিউজপোর্টাল ‘প্রতিসময়’ এর শিক্ষা-সাহিত্য পাতায় প্রাথমিকের শিক্ষার্থী ও অভিভাবকের জন্য করণীয় (তৃতীয় পর্ব) সম্পর্কে লিখেছেন কুমিল্লা নগরীর অন্যতম কিন্ডারগার্টেন কেন্দ্রিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ‘নজরুল মেমোরিয়াল একাডেমী’র সিনিয়র সহকারী শিক্ষক রোটারিয়ান মো. ফারুকুল ইসলাম।

প্রাথমিকের শিক্ষার্থী ও অভিভাবকের করণীয় (তৃতীয়পর্ব)

বর্তমান বিশ্ব এমন একটি সময়ের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে, যার সম্পর্কে আগে থেকে কোনো ভবিষ্যদ্বাণী ছিল না।করোনা এমন একটি সংকটের তরঙ্গ তৈরি করেছে, যা কেড়ে নিচ্ছে তাজা প্রাণ।শিক্ষার ক্ষেত্রে করোনা কেবল সাময়িক প্রভাবই ফেলেনি, এটি সৃষ্টি করেছে শিখনের দীর্ঘমেয়াদি ক্ষতি।করোনা শিক্ষার্থীদের মধ্যে মানবিক অস্থিরতার সঞ্চার করেছে।দীর্ঘদিন গৃহবন্দিত্ব তাদের স্বাভাবিক প্রবণতা ও বেড়ে উঠাকে বাধাগ্রস্ত করছে।

করোনাকালীন শিখন ক্ষতি মেনে নিতেই হবে।জীবনের চেয়ে কোনো কিছুই অগ্রাধিকার পেতে পারে না।তবে যতটুকু ক্ষতির পরিমাণ কমানো যায় সেটাই বিবেচ্য।এখন শিক্ষার্থীরা সম্পূর্ণ সময়টাই অভিভাবকদের তত্ত্বাবধানে আছে।তাই এ সময়টায় অভিভাবকগণ শিক্ষার্থীদের মধ্যে সু-অভ্যাস গঠন করার চেষ্টা করতে পারেন।

শিক্ষার্থীরা অটো প্রমোশন পেলে তারা সার্টিফিকেট লাভ করবে কিন্তু নির্ধারিত শিখন যোগ্যতা অর্জন করবে না।শিক্ষার্থীরা দীর্ঘ সময় বাসায় বসে থাকতে থাকতে একেবারেই বোরিং হয়ে পড়েছে।কারণ, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকলে বাসায় পাঠ্যপুস্তকে মন না বসাটাই স্বাভাবিক। পড়তে মন চায় না, এটা চরম সত্য কথা। এই অবস্থায় শিক্ষার্থীরা যাতে মানসিক কোনো সমস্যায় না পড়ে সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে। তাই তাদেরকে আগামী দিনের যোগ্য নাগরিক হিসেবে গড়ে তুলতে অভিভাবকদের অগ্রণী ভূমিকা পালন করতে হবে।

১. বাসায় পরীক্ষার ব্যবস্থা করতে হবে: পাঠ্যপুস্তক ভালোভাবে শেষ করার পর বাসায় পরীক্ষার ব্যবস্থা করতে হবে।তাতে শিক্ষার্থীরা অধ্যায়গুলো কতটুকু আয়ত্ব করতে পারল কিনা তা বুঝা যাবে।কোনো অধ্যায় কম আয়ত্ব হলে সেগুলোর সমস্যার সমাধান করতে হবে।

২. অধ্যায়ভিত্তিক আলোচনা করতে হবে: এখন সৃজনশীলের সময়। যেকোনো বিষয় বুঝে উত্তর দিতে হবে। তাই কোনো গল্প কিংবা কবিতা পড়ার পর সন্তান কি বোঝল তা তাদের সাথে আলোচনা করতে হবে। এখন থেকেই আমাদের সন্তানরা প্রশ্ন বুঝে উত্তর দেবার অভ্যাস করালে, তারা আর না বোঝে তোতা পাখির মতো মুখস্ত করবে না।

৩. পাঠ্যপুস্তক রিডিং পড়ার অভ্যাস করাতে হবে: অধিকাংশ শিক্ষার্থীই পাঠ্যপুস্তকের অধ্যায়গুলো রিডিং না পড়ে সরাসরি অনুশীলনীর প্রশ্নগুলোর উত্তর গাইড থেকে মুখস্ত করার চেষ্টা করে। অথচ অধ্যায়গুলো রিডিং পড়লে শুধু অনুশীলনীর প্রশ্ন না, অধ্যায়ের ভিতর থেকে ও কোনো প্রশ্ন করলে, সেপ্রশ্নের উত্তর দেবার দিতে পারবে।

৪. সন্তানদের কোয়ালিটি সময় দিতে হবে: সন্তানদের প্রতিদিন রুটিন মাফিক একটা কোয়ালিটি সময় দিতে হবে। তাতে সন্তানরা অনেক দিন বাসায় থাকার কারণে একঘেয়ামি অনুভব করবে না, মানসিক প্রশান্তি পাবে।

সর্বোপরি  সন্তানদের এবছরের পাঠ্যপুস্তক সম্পর্কে পুরোপরি ধারণা থাকতে হবে।অন্যথায় পরবর্তী শ্রেণির পড়াগুলো বুঝতে অসুবিধা হবে।কেননা পূর্ববর্তী শ্রেণির পড়ার সাথে পরবর্তী শ্রেণির পড়ার ধারাবাহিকতা থাকে।

# দেশ-বিদেশের গুরুত্বপূর্ণ খবর জানতে প্রতিসময় (protisomoy) ফেসবুক পেইজে লাইক দিন।  এছাড়া protisomoy ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন ও বেলবাটন ক্লিক করে নতুন নতুন ভিডিও নিউজ পেতে অ্যাকটিভ থাকুন।

Last Updated on November 28, 2020 11:58 am by প্রতি সময়

শেয়ার করুন
এই ধরনের আরও খবর...

বিস্তারিত জানতে ছবিতে ক্লিক করুন।

themesba-lates1749691102