বৃহস্পতিবার, ০২ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৯:৪৪ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
এমপি বাহারের ধারাবাহিক উন্নয়নে কুমিল্লায় শিক্ষাঙ্গনগুলোতে সুন্দর পরিবেশ বিরাজ করছে :  মেয়র রিফাত  জাতীয় সাংবাদিক সংস্থা’র বুড়িচং উপজেলা কমিটি গঠন, জাবির সভাপতি হৃদয় সাধারণ সম্পাদক কুমিল্লার সদর দক্ষিণে গাঁজাসহ দুই মাদক কারবারি গ্রেফতার কুমিল্লায় চুরি হওয়া ১১ মোটরসাইকেল উদ্ধার, সঙ্ঘবদ্ধ চোর চক্রের ৯ সদস্য গ্রেফতার কুমিল্লা জেলা পুলিশের নতুন ডিআইও- ওয়ান ফজলে রাব্বি কুমিল্লায় ভুয়া ডিবি পুলিশ চক্রের এক সদস্য আটক কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে অটো চালকের ঘাতক গ্রেফতার কুমিল্লার মুরাদনগরে মাটি কাটা চক্রের হাতে বিনষ্ট প্রায় ৭শ বিঘা কৃষি জমি কুমিল্লা সদর দক্ষিনে ফেনসিডিলসহ মাদক কারবারি আটক নগরীর হাউজিং এস্টেটে সম্পত্তির দ্বন্দ্বে পিতার লাশের সামনে মেয়ে ও সৎ মায়ের ধস্তাধস্তি কুমিল্লার জনপ্রিয় ক্রীড়া সংগঠক ও সামাজিক ব্যক্তিত্ব সাইফুল ইসলাম জানু আর নেই কুমিল্লায় দুই শিশু হত্যা মামলায় একজনের মৃত্যুদন্ড অপরজনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ভোলার নূরে আলম গাঁজাসহ কুমিল্লা নগরীর কাপ্তানবাজারে আটক বুড়িচংয়ে পারিবারিক কলহের জেরে কলেজ ছাত্রের আত্মহত্যা  চট্টগ্রামে প্রকল্প পরিচালকের ওপর হামলার ঘটনার প্রতিবাদে এলজিইডি কুমিল্লা দফতরের মানববন্ধন দাউদকান্দিতে কাভার্ডভ্যান চাপায় বাখরাবাদ গ্যাস অফিসের গাড়ী চালক নিহত দাউদকান্দিতে আওয়ামী লীগ নেতার গাড়িতে হামলা ও ভাঙচুরের ঘটনায় ৫ আসামি গ্রেফতার এক লাখ ২০ হাজার টাকা জরিমানা গুনলো কুমিল্লার নুরজাহান ও ছন্দু হোটেল কুমিল্লায় ‘নিরাপদ অভিবাসন ও দক্ষতা উন্নয়ন’ শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত মুরাদনগরের সবুজ ১১৩৬ বোতল বিদেশী মদসহ কুমিল্লা নগরীর টমছমব্রীজে আটক

ব্যাপক প্রস্তুতিতে কুমিল্লায় বিএনপির বিভাগীয় গণসমাবেশ আগামীকাল

সাদিক মামুন
  • আপডেট টাইম শুক্রবার, ২৫ নভেম্বর, ২০২২
  • ৫৩ দেখা হয়েছে
কুমিল্লা টাউনহল মাঠে চলছে মঞ্চ তৈরিসহ আনুসঙ্গিক কাজ। নগরীতে বিএনপি কর্মী সমর্থকদের মিছিল। শুক্রবার বিকেলে কান্দিরপাড়।

কুমিল্লায় বিএনপির বিভাগীয় গণসমাবেশ অনুষ্ঠিত হচ্ছে আগামীকাল শনিবার। প্রায় আট বছর পর এধরণের সমাবেশের দৃশ্যপট ভেসে উঠবে কুমিল্লার ঐতিহাসিক টাউনহল মাঠে। ২০১৪ সালের ২৯ নভেম্বর বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া টাউনহল মাঠে সমাবেশ করেন। এরপর আর কুমিল্লায় বড় কোন সমাবেশের আয়োজন করতে পারেনি দলটি। আগামীকালের গণসমাবেশকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগের ঘাঁটি কুমিল্লায় বিএনপি বিশাল শোডাউনের প্রস্তুতি নিয়েছে। সমাবেশ সফল করতে সব প্রস্তুতি শুক্রবার রাতের মধ্যে সম্পন্ন হবে। সমাবেশের বক্তব্য শোনার জন্য নগরীর প্রতিটি পয়েন্টে মাইক থাকবে। এ ছাড়া অন্তত আটটি স্থানে বড় পর্দায় সরাসরি সমাবেশের কার্যক্রম দেখা ও বক্তব্য শোনার ব্যবস্থা রাখা হয়েছে।

গণসমাবেশ সফল করতে ব্যাপক প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে বিএনপি। সমাবেশ শুরুর একদিন আগেই পার্শ্ববর্তী চাঁদপুর ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা-উপজেলা থেকে বিএনপির বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী ও সমর্থক কুমিল্লা নগরীতে প্রবেশ করছে। তারা নগরী ও আশপাশের হোটেল, বিএনপি নেতাদের নির্মাণাধীন খালি ফ্ল্যাটে ও নেতাকর্মীদের বাসাবাড়িতে অবস্থান নেন। সেখানেই তারা উৎসবমুখর পরিবেশে খাওয়া-দাওয়া ও রাতযাপন করেন। সমাবেশে অংশগ্রহণকারীদের যাতে অসুবিধা না হয়, তার জন্য ১০টি উপ-কমিটি নিরলসভাবে কাজ করছে। প্রতিটি ইউনিটের বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীদের সমাবেশে থাকার পাশাপাশি সাধারণ মানুষকেও সমাবেশে উপস্থিত করতে বলা হয়। পাশের জেলা চাঁদপুর ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া থেকে সমাবেশে আগতদের একটি বড় অংশ সমাবেশস্থল টাউনহলে রাত যাপন করবে। বৃহস্পতিবারও দলের অনেক কর্মী টাউনহল মাঠে সামিয়ানা টানিয়ে রাত যাপন করেছে।

আজ শুক্রবার নগরীর সকল জামে মসজিদে জুমার নামাজে অতিরিক্ত মুসল্লীতে ছিল উপছে পড়া ভিড়। বিভিন্ন স্থান থেকে আসা স্থানীয় বিএনপির নেতকর্মীরা সমাবেশস্থল টাউনহল মাঠে জুমার নামজ আদায় করেন। এছাড়া কেন্দ্রিয় নেতা ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন ও বরকত উল্লাহ বুলুসহ অনেকেই টাউনহল মাঠে জুমার নামাজের জামাতে অংশ নেন।

কুমিল্লাসহ নিকটের চাঁদপুর, ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা-উপজেলা থেকে প্রতিটি এলাকার বিএনপি ও বিভিন্ন অঙ্গ সংগঠনের দায়িত্বশীল নেতাদের বিপুল সংখ্যক কর্মী-সমর্থক নিয়ে সমাবেশে উপস্থিত থাকতে কেন্দ্র থেকে আগেই নির্দেশ দেয়া হয়েছিল। যেকারণে শুক্রবার বেলা ১২টা থেকে বিকেল ৪টার মধ্যে চাঁদপুর, ব্রাহ্মণবাড়িয়া ও কুমিল্লার সকল উপজেলা থেকে নেতাকর্মীরা পিকআপ গাড়ী যোগে মিছিল নিয়ে নগরীতে প্রবেশ করে। আগে যেকটি বিভাগীয় সমাবেশ করেছে বিএনপি, সেই তুলনায় কুমিল্লার গণসমাবেশে নেতা, কর্মী,সমর্থকদের সমাবেশস্থলে তথা কুমিল্লায় আসাটা ছিল অনেকটা সহজতর। আওয়ামী লীগ বা পুলিশি কোন বাধার সম্মুখীন হতে হয়নি তাদের। তবে বিএনপির স্থানীয় নেতারা জানিয়েছেন, বিভিন্ন বিভাগে অনুষ্ঠিত বিভাগীয় সমাবেশগুলোতে যেভাবে বাধা দেয়া হয়েছে কুমিল্লায়ও তার ব্যতিক্রম হবে না এমনটি মাথায় রেখেই সকল প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে।

এদিকে বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে আটটায় টাউনহল মাঠের চারদিন ব্যাপী বইমেলার আয়োজন শেষ হওয়ার পরপরই কুমিল্লা নগরীতে বিএনপি নেতাকর্মীদের মিছিলের ঢল নামে। এসব মিছিল টাউনহল মাঠে জড়ো হতে থাকে এবং মঞ্চের কাজ চলা সময়ে তারা মাঠেই অবস্থান করে। অপরদিকে আজ শুক্রবার দিনভর বিভিন্ন এলাকা থেকে সমাবেশ স্থলে আসেন বিএনপির অনেক নেতাকর্মী ও সমর্থকরা। সেখানে তারা স্লোগানে স্লোগানে মুখরিত করে তোলেন। রাতে তাদের একটি অংশ সমাবেশস্থলে থাকলেও বাকিরা বিএনপির স্থানীয় নেতাদের ব্যবস্থাপনায় বিভিন্ন হোটেল, বাসা-বাড়িতে অবস্থান করেন।

অপরদিকে নগরীর প্রাণকেন্দ্র কান্দিরপাড়সহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ এলাকায় ডিজিটাল ব্যানার, ফেস্টুন, পোস্টার ও বিলবোর্ড সাঁটিয়েছেন বিএনপি নেতাকর্মীরা।কান্দিরপাড় এলাকায় সমাবেশস্থলের পাশে বিলবোর্ড, ফেস্টুন ও ব্যানারে সয়লাব। এ ছাড়া নগরী ও ইউনিয়ন পরিষদের প্রায় সবকটি ওয়ার্ডেই পোস্টার, ব্যানার ও ফেস্টুন সাঁটানো আছে। দলের শীর্ষ নেতাদের স্বাগত জানিয়ে এসব ব্যানার-ফেস্টুন টানানো হয়েছে। গোটা কুমিল্লাজুড়ে বিরাজ করছে সাজ সাজ রব। শুক্রবার বিকেল থেকে কুমিল্লা মিছিলের নগরীতে পরিণত হয়।

এদিকে শুক্রবার বেলা ১১টায় নগরীর একটি টাওয়ারের হলরুমে গণসমাবেশ সফল করার লক্ষ্যে সংবাদ সম্মেলন করেছে বিএনপি। সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি স্থায়ী কমিটির সদস্য সাবেক মন্ত্রী ড. খন্দকার মোশাররফ দাবী করেন, সমাবেশে লোক সমাগম ঠেকাতে চাঁদপুর, ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার বিভিন্ন উপজেলায় নেতা কর্মীরা হামলা-মামলার শিকার হচ্ছেন। গত আট দশদিন ধরে চাঁদপুরের এডভোকেট সলিমুল্লাহ বাড়িতে হামলা হয়েছে। ব্রাহ্মণবাড়িয়া কসবায় নাসিরের বাড়িতে হামলা হয়েছে। লাকসাম, মনোহরগঞ্জে হামলা, গ্রেফতার হচ্ছে নেতাকর্মীরা।তিনি বলেন, এ সরকার দিনের ভোট রাতে নিয়েছে। গণতন্ত্রকে হত্যা করেছে, ব্যাংক লুট করেছে, ব্যাংকে ডলার নাই, এলসি খোলা যাচ্ছে না, এ সরকারের বিদায় ঘণ্টা বেজে গেছে। কুমিল্লার সমাবেশ থেকে এ অবৈধ সরকারকে লাল কার্ড দেখানো হবে। সমাবেশে বক্তব্য রাখেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান বরকত উল্লাহ বুলু, কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা বিএনপির আহ্বায়ক আমিন উর রশিদ ইয়াছিন, কুমিল্লা বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মোস্তাক মিয়া।

সংবাদ সম্মেলন শেষে বিএনপির কেন্দ্রিয় নেতারা সমাবেশস্থল টাউনহল মাঠ পরিদর্শন করেন। এসময় খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, কোনো অপশক্তি আমাদের নেতাকর্মীদের দমিয়ে রাখতে পারবে না। সকাল থেকে সারা শহরে মিছিল হচ্ছে। নেতাকর্মীে ভরে গেছে শহর। সুতরাং কুমিল্লা নগরী জনগণের মহানগরীতে পরিণত হয়েছে। তারাই শনিবারের সমাবেশ সফল করবেন।

বিএনপির সমাবেশ আয়োজক সূত্রে জানা গেছে,আগামীকালের সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখবেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। কেন্দ্রিয় নেতাদের মধ্যে বক্তব্য রাখবেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস, বিএনপি ভাইস চেয়ারম্যান বরকত উল্লাহ বুলু, বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল প্রমুখ। সভাপতিত্ব করবেন কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা বিএনপির আহবায়ক আমিন উর রশিদ ইয়াছিন।

এদিকে বিএনপির সমাবেশ নিয়ে আইনশৃংখলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে জেলা পুলিশ সর্তক রয়েছে বলে জানান কুমিল্লা পুলিশ সুপার আবদুল মান্নান। পুলিশ সুপার বলেন, যে কোন সমাবেশ আয়োজন হলে পুলিশ সর্তক থাকে। এটা স্বাভাবিক। আমরাও সর্তক থাকবো যেন কোন প্রকার অপ্রীতিকর পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়ে সাধারণ মানুষের কোন সমস্যা না হয়। এছাড়াও আমাদের বাড়তি নজরদারী থাকবে সড়কগুলোতে। যেন যানজট সৃষ্টি না হয়।

 

উল্লেখ্য, জ্বালানি তেল ও নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের মূল্যবৃদ্ধি, পুলিশের গুলিতে দলের ৫ কর্মী নিহত হওয়ার অভিযোগ করে নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মামলার প্রতিবাদে ও খালেদা জিয়ার মুক্তি ও নির্দলীয়-নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে জাতীয় সংসদ নির্বাচনের দাবিতে ১২ অক্টোবর থেকে বিভাগীয় গণসমাবেশ কর্মসূচি শুরু করে বিএনপি। প্রথম গণসমাবেশ হয় চট্টগ্রামের পলোগ্রাউন্ডে। এরপর ১৫ অক্টোবর ময়মনসিংহ, ২২ অক্টোবর খুলনা, ২৯ অক্টোবর রংপুর, ৫ নভেম্বর বরিশাল, ১২ নভেম্বর ফরিদপুর, ১৯ নভেম্বর সিলেটে গণসমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। তারই ধারাবাহিকতায় আগামীকাল২৬ নভেম্বর কুমিল্লায় বিভাগীয় গণসমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে।

Last Updated on November 25, 2022 8:49 pm by প্রতি সময়

শেয়ার করুন
এই ধরনের আরও খবর...

বিস্তারিত জানতে ছবিতে ক্লিক করুন।

themesba-lates1749691102