বুধবার, ০৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০১:৫৪ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
কুমিল্লার বুড়িচংয়ে একদিনে তিন জনের আত্মহত্যা এলজিইডি কুমিল্লা দপ্তরে মান নিয়ন্ত্রণ ল্যাবরেটরি সংক্রান্ত প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত ধর্মের অপব্যাখ্যা রোধে ওলামা মাশায়েখদের মূখ্য ভূমিকা পালন করতে হবে : উপজেলা চেয়ারম্যান টুটুল কুমিল্লাস্থ বরুড়া উপজেলা উন্নয়ন সমিতির উদ্যোগে সহস্রাধিক শিক্ষার্থী পেল খাবার ও কলম কুমিল্লার সদর দক্ষিণে ফেন্সিডিলসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার প্রায় এক যুগ পর মুরাদনগরে ক্ষতিগ্রস্ত রাস্তার সংস্কার কাজের উদ্বোধন শত কেজি গাঁজা ও ইয়াবা ট্যাবলেট সহ দুই ভারতীয় নাগরিক আটক শেখ হাসিনা উন্নয়নের স্বপ্ন দেখেন আবার তা বাস্তবায়নও করেন : কুমিল্লা জেলা প্রশাসক চান্দিনায় এমপি’র পর এবার অনুসারীদের ভিডিও ভাইরাল চান্দিনায় পুলিশ পরিচয়ে ছিনতাইকালে চারজন আটক ব্রাহ্মণপাড়ায় মসজিদের ইমামকে গলা কেটে হত্যা চেষ্টার  অভিযোগে একজন গ্রেফতার  যোগদান করেই বুড়িচং থানার নতুন ওসি ইসলাম হোসেন যা বললেন রবীন্দ্রের মাত্র ২৪ হাজারের মরোনত্তর বীমা দাবির লক্ষাধিক টাকার চেক পেল নমিনি রমা রানী কুমিল্লায় র‍্যাবের অভিযানে ভারতীয় পণ্যসহ পাঁচ চোরাকারবারি আটক ভাষার মাসে ৫২ তে দৈনিক রূপসী বাংলা কুমিল্লা টাউনহল মাঠে বিএনপির সমাবেশে মুরাদনগরের সহস্রাধিক নেতাকর্মীর অংশগ্রহণ  দাউদকান্দিতে ৫শ পিস ইয়াবা সহ মাদক কারবারি আটক দেশে সত্যিকার গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করতে হলে রাজপথের আন্দোলনের বিকল্প নেই : কুমিল্লার সমাবেশে ড. খন্দকার মোশাররফ সিসি ক্যামেরায় চোরের দেখা মিললেও উদ্ধার হয়নি মোটরসাইকেল খলিফায়ে আজম শাহসূফি আলমগীর খান মাইজভান্ডারীর খোশরোজ শরীফ উদযাপন

শিক্ষার্থীদের প্রয়োজনীয় কেনাকাটার জন্য এক হাজার টাকা করে দেয়া হবে : প্রধানমন্ত্রী

প্রতিসময় ডেস্ক
  • আপডেট টাইম বৃহস্পতিবার, ১০ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ১৮৩ দেখা হয়েছে
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সংগৃহিত ছবি

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ফাইলফটো #

প্রয়োজনীয় কেনাকাটার জন্য শিক্ষার্থীদের এক হাজার টাকা করে দেয়ার সিদ্ধান্তের কথা তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, যেহেতু করোনাভাইরাসে সবার জীবন স্থবির হয়ে পড়েছে এজন্য আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি শিক্ষার্থীদের আমরা এক হাজার করে টাকা দেব, যাতে করে তারা তাদের কাপড়-চোপড়, টিফিন বক্স ও প্রয়োজনীয় জিনিস কিনতে পারে। বৃহস্পতিবার (১০ সেপ্টেম্বর) জাতীয় সংসদের চলমান অধিবেশনের সমাপনী বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রী এ কথা বলেন।

করোনাকালে নেয়া সরকারের প্রণোদনা প্যাকেজগুলো তুলে ধরে সরকারপ্রধান বলেন, ‘২১টি প্যাকেজে এক লাখ ১২ হাজার ৬৩৩ কোটি টাকা বরাদ্দ করেছি। তা জিডিপির ৪ দশমিক শূন্য ৩ শতাংশ। এর বাইরেও ননএমপিওভুক্ত শিক্ষকদের আমার বিশেষ তহবিল থেকে আর্থিক সহায়তা দিয়েছি। প্রতিটি মসজিদ-মাদরাসায় টাকা পাঠিয়েছি। সরকারের প্রণোদনার বাইরেও আর্থিক সহায়তা দিয়ে যাচ্ছি।’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন,’কোনো মানুষ যেন কষ্টে না থাকে সেদিকে বিশেষ দৃষ্টি রেখেই আমরা এই ব্যবস্থাটা নিয়েছি। অর্থনীতির চাকাটা যাতে গতিশীল থাকে আর সাধারণ মানুষ যেন কষ্ট না পায় তার জন্য এ ব্যবস্থা আমরা নিয়েছি। কারণ দেশের মানুষের জন্যই আমাদের এই রাজনীতি।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, করোনা চলমান এরই মধ্যে এলো ঘূর্ণিঝড় আম্ফান। তারপর এলো দীর্ঘমেয়াদি বন্যা। একটার পর একটা আঘাত এসেছে। আমি চেষ্টা করা হয়েছে দেশের মানুষের যেন কষ্ট না হয়। মানুষ যেন কোনো দুর্ভোগ না পোহায়। আল্লাহর রহমতে সেটা কাটানো গেছে। সক্ষম। সরকারের প্রচেষ্টা মানুষের জন্য কাজ, আর সেটাই করা হচ্ছে।

দেশবাসীর প্রতি আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, বিপদ দেখে ভয়ে হতাশাগ্রস্ত যেন না হয়ে পড়ি। বিপদ আসবে। সেটা আমাকে মোকাবিলা করতে হবে। এর জন্য আগাম প্রস্তুতি নিতে হবে। আমরা সেই প্রস্তুতি নিয়েই এগিয়ে যাচ্ছি। সেভাবে সার্বিক উন্নয়নে আমরা কাজ করে যাচ্ছি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা সাধ্যমতো মানুষের পাশে আছি। মানুষের পাশে থেকে কাজ করে যাচ্ছি। যখন সাধারণ ছুটি ঘোষণা করা হয়েছিল তখন করোনাভাইরাস মোকাবিলা, ত্রাণ বিতরণসহ অন্যান্য কাজে যে সব মন্ত্রণালয়ের সংশ্লিষ্টতা ছিল তারা কাজ করেছে। আমাদের কিছুদিন থমকে যেতে হয়েছিল। সবকিছু প্রায় বন্ধ অবস্থায় ছিল। সব কার্যক্রম প্রায় স্থবির হয়ে গিয়েছিল। কিন্তু তার মধ্যেও সরকার কিন্তু বসে থাকেনি। যার কারণে আমরা রিজার্ভ ৩৯ দশমিক ৪০ বিলিয়ন মার্কিন ডলারে উন্নীত করতে পেরেছি। এখানে অবশ্য আরেকটা কারণ আছে আমাদের খরচ কমেছে। করোনাভাইরাসের কারণে আমাদের বিদেশ যাওয়া নেই, বিভিন্ন অনুষ্ঠান নেই। এসব কারণে আমাদের বেশ সাশ্রয় হয়েছে। সেটা আমরা মানুষের কল্যাণে ব্যয় করতে পারছি।

তিনি বলেন, মাথাপিছু আয় দুই হাজার ৬৪ ডলারে উন্নীত হয়েছে। মাঝখানে কিছুদিন রফতানি একটু থমকে গেলেও আমাদের আমদানি-রফতানি এখন বৃদ্ধি পেয়েছে। যে কারণে গার্মেন্টগুলো যা চেয়েছে আমরা সেভাবে দিয়েছি। আমাদের রফতানি যেন ক্যানসেল না করে, যে কারণে অনেক দেশের সরকারপ্রধানের সাথে আমি নিজেও কথা বলেছি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমাদের বড় মেগা প্রজেক্টগুলো থমকে গিয়েছিল সেগুলোর কাজ এখন চলমান। ডিজিটাল করে আমরা সরকারি কার্যক্রমগুলো সক্ষম রাখতে পেরেছি। দেশকে আমরা এগিয়ে নিয়ে যেতে চাই।

# দেশবিদেশের গুরুত্বপূর্ণ খবর জানতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন

Last Updated on September 10, 2020 10:45 am by প্রতি সময়

শেয়ার করুন
এই ধরনের আরও খবর...

বিস্তারিত জানতে ছবিতে ক্লিক করুন।

themesba-lates1749691102