মঙ্গলবার, ২০ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১১:১৫ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
এম এ জাহের ফাউন্ডেশনের শিক্ষা বৃত্তি পেল মেধাবী শিক্ষার্থীরা কুমিল্লা জেলা আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে মনোনয়নপত্র জমা দিল সম্মিলিত আইনজীবী সম্বন্বয় পরিষদ # লিটন সভাপতি জাহাঙ্গীর সাধারণ সম্পাদক চৌদ্দগ্রামে ৫৪ কেজি গাঁজাসহ একজন আটক কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে দীর্ঘ হচ্ছে পদত্যাগের তালিকা শিক্ষক হেনস্তার ঘটনায় কুবির দুই কর্মকর্তা ও সাবেক শিক্ষার্থীদের বিরুদ্ধে থানায় জিডি কুবি শিক্ষক সমিতির সভাপতি তাহের সম্পাদক মেহেদি # নীল দলের নিরঙ্কুশ জয় কুমিল্লা আইডিয়াল কলেজে ইয়ুথ চেঞ্জ সোসাইটি বাংলাদেশের স্পিক টু লিড সেমিনার অনুষ্ঠিত বরুড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আয়োজনে মিলনমেলা ও বসন্ত উৎসব ব্রাহ্মণপাড়ায় ৬৪ কেজি গাঁজাসহ দুই মাদক কারবারি গ্রেফতার কুমিল্লায় বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির ৫০ বছর পূর্তি উদযাপন কুবি শিক্ষক সমিতির নির্বাচন সোমবার পদত্যাগ জ্বরে কাঁপছে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়, এবারের তালিকায় সহকারী প্রক্টর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে ইলিয়াস সানীর লেখা প্রথম বই সর্বমহলে প্রশংসিত সীমান্তে হত্যা বন্ধের দাবিতে হানিফ বাংলাদেশীর নেতৃত্বে প্রতীকী লাশের মিছিল কুবিতে দুই রুমমেটের মারামারি রোহিঙ্গা যুবকের পাসপোর্ট তৈরিতে সম্পৃক্ত তিনজন গ্রেফতার কুমিল্লাস্থ বরুড়া জনকল্যাণ সমিতির নতুন কমিটি গঠন শহীদ মিনার নেই দেড় হাজারেরও বেশি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মুখে যা বলেন দেশের উন্নয়নে তা করে দেখান : ইঞ্জিনিয়ার আবদুস সবুর এমপি বরুড়ার কাদবা তলাগ্রাম বিদ্যালয়ের কেন্দ্রসচিব আইয়ুব আলীকে প্রত্যাহার

২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা : ইতিহাসের নৃশংসতম হত্যাযজ্ঞের ১৬ বছর

প্রতিসময় ডেস্ক
  • আপডেট টাইম শুক্রবার, ২১ আগস্ট, ২০২০
  • ২১৬ দেখা হয়েছে

একটি নৃশংসতম হত্যাযজ্ঞের ভয়াল দিন ২১ আগস্ট। ২০০৪ সালের এই দিনে বঙ্গবন্ধু এভিনিউতে আওয়ামী লীগের সন্ত্রাসবিরোধী শান্তি সমাবেশে নারকীয় গ্রেনেড হামলা চালানো হয়।বর্তমান প্রধানমন্ত্রী ও তৎকালীন বিরোধী দলীয় নেতা শেখ হাসিনা এবং আওয়ামী লীগের শীর্ষ স্থানীয় কয়েকজন নেতা সেদিন অল্পের জন্য এই ভয়াবহ হামলা থেকে বেঁচে গেলেও নিহত হন মহিলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বেগম আইভি রহমাসহ ২৪ জন।

ইতিহাসের ভয়াবহতম গ্রেনেড হামলার ১৬তম বার্ষিকী আজ।১৬ বছর আগে এই দিনে মূলত দেশের বৃহৎ রাজনৈতিক সংগঠন আওয়ামী লীকে নেতৃত্ব শূন্য করতে বিএনপি-জামায়াত তথা চার দলীয় জোট সরকার রাষ্ট্রযন্ত্র ব্যবহার করে ভয়াবহতম গ্রেনেড হামলা চালায়।

গ্রেনেডের স্পিন্টারের আঘাতে আহত হন পাঁচ শতাধিক নেতাকর্মী। আহত হন প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকরা। আহত আওয়ামী লীগ নেতাকর্মী-সমর্থকদের অনেকে এখনও স্পিন্টারের আঘাত নিয়ে মানবেতর জীবনযাপন করছেন। আওয়ামী লীগকে নেতৃত্বশূন্য করতে এ হামলা করা হয়েছিল।

শেখ হাসিনার বক্তব্যের শেষ পর্যায়ে আকস্মিক গ্রেনেড বিস্ফোরণে ঘটনাস্থলে মারাত্মক বিশৃংখলা, ভয়াবহ মৃত্যু ও দিনের আলো মুছে গিয়ে এক ধোয়াচ্ছন্ন পরিবেশ সৃষ্টি হয়। ঢাকার তৎকালীন মেয়র মোহাম্মদ হানিফ এবং হাসিনার ব্যক্তিগত দেহরক্ষী তাৎক্ষণিকভাবে এক মানব বলয় তৈরি করে নিজেরা আঘাত সহ্য করে শেখ হাসিনাকে গ্রেনেডের হাত থেকে রক্ষা করেন। মেয়র হানিফের মস্তিস্কে রক্তক্ষরণজনিত অস্ত্রোপচার করার কথা থাকলেও গ্রেনেডের স্পিন্টার শরীরে থাকার কারণে তার অস্ত্রোপাচার করা সম্ভব হয়নি। পরে তিনি ব্যাংকক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।

শুধু গ্রেনেড হামলাই নয়, সেদিন শেখ হাসিনাকে হত্যার উদ্দেশ্যে তার গাড়ি লক্ষ্য করেও চালানো হয় ছয় রাউন্ড গুলি। আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা অল্পের জন্য প্রাণে বেঁচে গেলেও তিনি আহত হন, তার শ্রবণশক্তি ক্ষতিগ্রস্ত হয়।

২০০৪ সালের ২১ আগস্টের এই হত্যাকাণ্ড প্রতিকারের ব্যাপারে তৎকালীন বিএনপি সরকার নির্লিপ্ত ভূমিকা পালন করেছিল। শুধু তাই নয় এ হামলার সাথে জড়িত ব্যক্তিদের রক্ষা করতে সরকারের কর্মকর্তারা ঘটনাকে ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করার চেষ্টা করছে। ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধারকৃত পাঁচটি গ্রেনেড ধ্বংস করে দিয়ে প্রমান নষ্ট করার চেষ্টাও করা হয়েছিল। বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের সময় গ্রেনেড হামলা মামলাটি ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করার জন্য জজমিয়া নাটক সাজানো হয়। সময়ের পরিক্রমায় এ ঘটনা নিয়ে দুটি মামলা চলমান থাকে। একটি হত্যা মামলা এবং অপরটি বিস্ফোরক দ্রব্যাদি আইনের মামলা।

দীর্ঘ ১৪ বছর পর ২০১৮ সালে আদালত ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার রায় প্রদান করে।  আদালত এই দুই মামলার রায়ে জীবিত মোট ৪৯ জন আসামির মধ্যে ১৯ জনের মৃত্যুদণ্ড, ১৯ জনের যাবজ্জীবন এবং বাকি ১১ জনের বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড দিয়েছেন। মামলাটি এখন উচ্চ আদালতে বিচারাধীন। ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার মাস্টার-মাইন্ড বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানসহ পলাতক আসামিদের দেশে ফিরিয়ে এনে আদালতের রায় কার্যকর করতে সরকারের প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

# দেশ-বিদেশের গুরুত্বপূর্ণ খবর জানতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

Last Updated on August 21, 2020 4:41 pm by প্রতি সময়

শেয়ার করুন
এই ধরনের আরও খবর...

বিস্তারিত জানতে ছবিতে ক্লিক করুন।

themesba-lates1749691102