সোমবার, ২৫ অক্টোবর ২০২১, ০৫:২৯ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
নাঙ্গলকোটে সরকারি জায়গায় বাড়ির সীমানার প্রাচীর নির্মাণের অভিযোগ ফেয়ার হসপিটালের পরিচালনা পর্ষদ দ্বন্ধে চিকিৎসাসেবা বিঘ্নিত সৌদি আরব সফরে ইমরান খান গাড়ির পতাকা, প্রটোকল সবকিছুই সাময়িক; কিন্তু বন্ধুত্বের বন্ধন চিরদিনের : সুইপার বন্ধুকে কাছে পেয়ে ফেসবুকে স্মৃতিকাতর প্রতিমন্ত্রী লালমাইয়ে সিএনজি ফিলিং স্টেশনের আগুনে পুড়ে গেছে প্রাইভেটকার এ দেশ অসাম্প্রদায়িক চেতনার দেশ : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বুড়িচংয়ে দেশীয় অস্ত্রসহ তিন ডাকাত আটক ইকবালের ইন্ধনদাতাকে খুঁজে বের করুন : কুমিল্লায় গয়েশ্বর রায় পিছিয়ে থাকা জনগোষ্ঠীর ভাগ্য উন্নয়নে সকলকে কাজ করতে হবে : সিনিয়র সচিব-আইসিটি বিভাগ ইকবাল ও দারোগাবাড়ি মাজারের সহকারি খাদেমসহ চারজন সাতদিনের পুলিশ রিমান্ডে কুমিল্লার ঘটনা ফেসবুক লাইভে প্রচারকারী ফয়েজের আদালতে স্বীকারোক্তি আল-কায়েদার শীর্ষ নেতা সিরিয়ায় মার্কিন ড্রোন হামলায় নিহত পোলিওমুক্ত বিশ্ব গঠনে রোটারি ইন্টারন্যাশনাল ইকবালকে কারা ব্যবহার করেছে তা উদঘাটনের দাবী নেটিজনদের মুরাদনগরে সম্পত্তি নিয়ে বিরোধ : শিক্ষকের বাড়িতে হামলা লকডাউনকে বিদায় জানালো মেলবোর্নবাসী ক্ষতিগ্রস্তদের ক্ষতিপূরণ দেওয়ার দাবি জানিয়েছে হিন্দু মহাজোট আলোচিত যুবক ইকবালকে কুমিল্লায় এনে চলছে জিজ্ঞাসাবাদ মণ্ডপে কোরআন রাখা ইকবাল অবশেষে গ্রেফতার বেগম রোকেয়া পদকপ্রাপ্ত বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ প্রফেসর জোহরা আনিস আর নেই

কুমিল্লা নগরীতে নকশাবহির্ভূত ১১তলা একটি ভবনের বর্ধিত অংশ ভেঙ্গে ফেলছে কুসিক

নেকবর হোসেন, স্টাফ রিপোর্টার-কুমিল্লা
  • আপডেট টাইম বুধবার, ১৩ অক্টোবর, ২০২১
  • ৫০ দেখা হয়েছে

কুমিল্লা নগরীতে পাঁচতলার অনুমতি নিয়ে ১১ তলা নির্মাণ করায় ভবনটি ভাঙা শুরু করেছে কুমিল্লা সিটি করপোরেশন।

নগরীর  ১১ নম্বর ওয়ার্ডে দেশওয়ালিপট্টিতে অবস্থিত ভবনটির বর্ধিত তলা মঙ্গলবার থেকে ভাঙ্গা শুরু করে সিটি কর্পোরেশনের নিয়োজিত শ্রমিকরা।

স্থানীয়দের অভিযোগ, মনোহরপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সীমানাঘেঁষা এই ভবনটিতে ঝুঁকিপূর্ণভাবেই নির্মাণকাজ চলছিল।
তালুকদার হাউস নামে ওই ভবনটির মালিক সাদেকুল ইসলাম। কুমিল্লা পৌরসভা থাকার সময়ে তিনি জায়গাটিতে ৫ তলা ভবনের অনুমোদন নেন।
পরে ৫ তলার ওপর গড়ে তোলেন আরও ৬ তলা। গলির ভেতরে ও ভবনের সামনে অন্য ভবন থাকায় দীর্ঘদিন প্রশাসনের চোখে পড়েনি এই ভবনটি।
সিটি করপোরেশন কর্তৃপক্ষ জানায়, নকশাবহির্ভূত ও ভবন নির্মাণ আইন অমান্য করে নির্মাণকাজ চলছিল। এ অবস্থায় ভবনমালিককে নির্মাণকাজ বন্ধ রাখার জন্য চিঠি দেয় সিটি কর্তৃপক্ষ।

পরে কয়েকবার ভবনের সামনে ঝুঁকিপূর্ণ ভবন ও পরিত্যক্ত ঘোষণা করে ব্যানার টানিয়ে দেয়া হয়। এমনকি বিদ্যুৎ ও পানির লাইন বিচ্ছিন্ন করেও দমানো যায়নি ভবনের মালিককে। সর্বশেষ সোমবার সিটি কর্তৃপক্ষ ভবনের মালিককে আবারও চিঠি দেয়। মঙ্গলবার তাকে ওই ভবনে থাকার জন্য নির্দেশ দেয়া হয়।
কিন্তু সকালে কুমিল্লা সিটি মেয়রসহ কর্তৃপক্ষ ওই ভবনে গিয়েও পায়নি মালিককে। পরে সিটি করপোরেশনে কর্মরত শ্রমিকরা হাতুড়ি-শাবল দিয়ে ওই ভবনটি ভাঙা শুরু করেন।

ভবনের ম্যানেজার মিজানুর রহমান জানান, মালিক বাড়িতে নেই। তিনি আগেই ভাড়াটিয়াদের নোটিশ দিয়েছেন। পুরো ভবন খালি থাকলে ৭ তলায় একটি পরিবার রয়েছে। তারাও দুই-এক দিনের মধ্যে ছেড়ে দেবে।

কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের সার্ভেয়ার আবুল কাশেম ভূঁইয়া জানান, ভবনের মালিককে বারবার নোটিশ দেয়ার পরও তিনি তা মানেননি। তাই তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। ভবনের বর্ধিত অংশ মঙ্গলবার সকাল থেকেই ভেঙে ফেলার কাজ শুরু করেছে সিটি কর্তৃপক্ষ।

সিটি করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সফিকুল ইসলাম জানান, সিটি কর্তৃপক্ষ নগরীতে যেসব ভবন নকশাবহির্ভূত ও নকশার অনুমোদন ছাড়া গড়ে উঠেছে, সেগুলোর তালিকা করেছে। তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। জনবলসংকটের কারণে প্রক্রিয়াটিতে ধীরগতি থাকলেও এই ব্যবস্থা চলবে।

Last Updated on October 13, 2021 1:15 pm by প্রতি সময়

শেয়ার করুন
এই ধরনের আরও খবর...

বিস্তারিত জানতে ছবিতে ক্লিক করুন।

themesba-lates1749691102
error: Content is protected !!