মঙ্গলবার, ৩০ নভেম্বর ২০২১, ০৩:৩৩ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
কাউন্সিলর সোহেল খুনের ঘটনায় ছয় হামলাকারী শনাক্ত দাউদকান্দিতে জামানত হারাচ্ছেন নৌকার দুই মাঝি কাউন্সিলর সোহেল খুনের মামলায় গ্রেফতার আরও দুইজন কঠোর নজরদারি ও মনিটরিংয়ে আফ্রিকা থেকে আগত যাত্রীরা [ওমিক্রনের বিষয়ে জারি হতে পারে প্রজ্ঞাপন] নৌকা ১৬ স্বতন্ত্র ১৪ বরুড়ায় বোরকা ডান্সের সেই নারী প্রার্থীর জয় করোনাভাইরাসের নতুন ভ্যারিয়েন্ট ‘ওমিক্রন’ : সংক্রমিত দেশের যাত্রী আগমন বন্ধের সুপারিশ খালেদা জিয়ার মুক্তি ও বিদেশে চিকিৎসার দাবীতে কাফনের কাপড় পড়ে স্বেচ্ছাসেবক দলের বিক্ষোভ মিছিল বরুড়ায় প্রিজাইডিং অফিসার ও পুলিশ কর্মকর্তা আহত, হোমনা-দাউদকান্দিতে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া হামাগুড়ি দিয়ে ভোটকেন্দ্রে এলেন মোর্শেদা কুমিল্লার বরুড়ায় ভোটকেন্দ্রে প্রিজাইডিং অফিসার ও এসআই ছুরিকাঘাতে আহত মুরাদনগরে মাটি কাটার অর্ধশতাধিক মেশিন ও ২৬ হাজার ফুট পাইপ ধ্বংস কাউন্সিলর সোহেল-হরিপদ হত্যাকাণ্ড : রকি ও আলম গ্রেপ্তার হত্যাকাণ্ডের তিন দিন আগে সন্ত্রাসীদের নামের তালিকা দিয়েছিলেন আরফানুল হক রিফাতের হাতে বাংলাদেশও দক্ষিণ আফ্রিকার সঙ্গে যোগাযোগ স্থগিত করতে যাচ্ছে : স্বাস্থ্যমন্ত্রী সোহেল-হরিপদ হত্যাকাণ্ড : এজহার নামীয় ছয় আসামীর বিরুদ্ধে রয়েছে অস্ত্র মাদক সন্ত্রাসসহ একাধিক মামলা [ঘটনার ছায়া তদন্তে র‌্যাব সিআইডি পিবিআই] খালেদা জিয়াকে দেখতে হাসপাতালে গেলেন ভাসানী পরিবার কাউন্সিলর সোহেল হত্যা : খুনীদের গ্রেফতারের দাবীতে ১৭ নং ওয়ার্ডবাসীর মানববন্ধন বরুড়ায় স্বতন্ত্র প্রার্থীর নির্বাচনী কার্যালয়ে আগুন দেশে ৫ দশমিক ৮ মাত্রার ভূমিকম্প অনুভূত

কাউন্সিলর সোহেল হত্যা : খুনি চেনার চাঞ্চল্যকর তথ্য দিলেন গুলিবিদ্ধ বাদল

নেকবর হোসেন, স্টাফ রিপোর্টার
  • আপডেট টাইম মঙ্গলবার, ২৩ নভেম্বর, ২০২১
  • ১৭২ দেখা হয়েছে
# কুসিক কাউন্সিলর সৈয়দ মো. সোহেল। ফাইলফটো

কালো পোষাকে র‌্যাবের পরিচয়ে কার্যালয়ে ঢুকে প্রথমেই কাউন্সিলর সোহেলের মাথায় গুলি করে মুখোশধারি দুর্বৃত্ত।কাউন্সিলরের মৃত্যু নিশ্চিত করার জন্য শেষের গুলিটি যে করেছে তাকে চেনা গেছে।সে ওই গুলির পরে কাউন্সিলর সোহেলের বুকে লাথিও মেরেছে। কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের ১৭ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্যানেল মেয়র সৈয়দ মো. সোহেল ও তার সহযোগী হরিপদ সাহাকে গুলি করে হত্যার ঘটনায় চাঞ্চল্যকর তথ্য দিয়েছেন গুলিবিদ্ধ মো. বাদল।  ঘটনার সময় তিনি সোহেলের সঙ্গেই কাউন্সিলর কার্যালয়ে বসা ছিলেন।

কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন গুলিতে আহত মো. বাদল পুলিশ ও সাংবাদিকদের ঘটনার বর্ণনা দিয়ে মঙ্গলবার জানান, ‘প্রতিদিনের মতো বিকেলের এই সময়টাতে কাউন্সিলর সোহেল ভাইয়ের কার্যালয়ে বসে ছিলাম। বিকালে সোহেল ভাই কার্যালয়ে এলে একসঙ্গে বাইরে ঘোরাফেরা করি।

সোমবার কার্যালয়ে সোহেল ভাই, আমিসহ ছয় জন বসে কথা বলছিলাম। বাইরে ঘুরতে বের হওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছি সবাই। এ সময় পিস্তল হাতে কার্যালয়ে ঢুকে পাঁচ জন। সবার মুখে মুখোশ, মাথায় হেলমেট এবং পরনে কালো পোশাক ছিল। র‌্যাব পরিচয় দিয়ে প্রথমে সোহেল ভাইয়ের মাথায় গুলি চালায়। পরে আমাদের ওপর গুলি চালায়। সোহেল ভাই মাটিতে পড়ে গেলে তাকে আরও দুটি গুলি চালায়।

বাদল বলেন, ‘গুলি চালানোর সময় তারা কথা বলেছে। কণ্ঠ শুনে দুই জনকে চিনতে পেরেছি। তারা হলো নবগ্রামের শাহ আলম ও তার সহযোগী একই এলাকার সোহেল। শাহ আলমের কণ্ঠ আমার পরিচিত। সোহেল কথা বলার মাঝে তোতলামি করেছে। বাকি তিন জনকে চিনতে পারিনি।’

বাদল আরও বলেন, ‘গুলিবিদ্ধ হয়ে আমি সোহেল ভাইয়ের পাশে শুয়ে পড়ি। তখন দেখেছি সোহেলের মৃত্যু নিশ্চিত করার জন্য বুকে শেষ গুলিটি করেছে শাহ আলম। সেই সঙ্গে বুকে লাথি মেরেছে। এরপর মুখের মুখোশ উঁচু করে বলেছে, এই সোহেল, আমি শাহ আলম, দেখে যা’।

বাদল বলেন, হত্যাকাণ্ডে অংশ নেওয়া ৫জনের বিষয়ে ‍পুলিশকে জানিয়েছি। দুইজনের পরিচয়ও বলেছি।

এদিকে সোমবার বিকেলে ঘটনার পর কাউন্সিলর কার্যালয়ের সিসিটিভির ফুটেজ এবং একাধিক আলাতম সংগ্রহ করেছে পুলিশ ও র‌্যাবসহ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর একাধিক সংস্থা। ঘটনার ক্লু উদঘাটনে কাজ করছেন তারা।

স্থানীয় একাধিক দায়িত্বশীল ব্যক্তি ও পুলিশের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, হামলাকারীদের টার্গেট ছিল কাউন্সিলর সোহেল। এঘটনার পেছনে রয়েছে ব্যক্তিগত দ্বন্দ্ব, মাদক, গোমতী নদীর মাটি ও বালু ব্যবসায় আধিপত্য বিস্তার।

কুমিল্লার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অর্থ) আব্দুর রহীম বলেন, কাউন্সিলর সোহেলসহ দুই জন নিহতের ঘটনায় পুলিশের তদন্ত অব্যাহত রয়েছে। বেশ কিছু আলামত সংগ্রহ করা হয়েছে। তবে এখনও পরিবারের পক্ষ থেকে মামলা করা হয়নি। অন্যদিকে ১৬ ও ১৭ নম্বর ওয়ার্ডের বিভিন্ন এলাকায় রাতে হামলা, ভাঙচুরের ঘটনা ঘটলেও কেউ অভিযোগ দেয়নি। পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে কাজ করছে পুলিশ।

কুমিল্লা কোতোয়ালি মডেল থানার ওসি আনওয়ারুল আজিম বলেন, ওই এলাকার বাসিন্দারা জানিয়েছেন হত্যাকাণ্ডে শাহ আলম ও তার সহযোগী সোহেল জড়িত। একই সঙ্গে কাউন্সিলর সোহেলের সহযোগী বাদলও একই কথা বলেছেন। হত্যাকাণ্ডে তাদের সম্পৃক্ততা যাচাই করছি আমরা। সেই সঙ্গে কার্যালয়ে গুলি চালানো, হত্যাকাণ্ডের আলামত ও সিসিটিভির ফুটেজ সংগ্রহ করেছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। সবগুলো তথ্য যাচাই-বাছাই করে ঘটনায় জড়িতদের গ্রেফতার করা হবে।

Last Updated on November 23, 2021 10:58 pm by প্রতি সময়

শেয়ার করুন
এই ধরনের আরও খবর...

বিস্তারিত জানতে ছবিতে ক্লিক করুন।

themesba-lates1749691102
error: Content is protected !!