মঙ্গলবার, ১৮ জানুয়ারী ২০২২, ০৫:৩০ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
সদরের আমতলীতে র‌্যাবের অভিযানে  দুই মাদককারবারী আটক ৯৩ বছর বয়সে বিয়ে করলেন কুমিল্লার সর্বজন শ্রদ্ধেয় আইনজীবী মো. ইসমাইল কুমিল্লা জেলাজুড়ে করোনার উর্ধ্বগতি *বড় বিপদের আশঙ্কা দেখছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর* নতুন বছরে দৃঢ় মনোবল নিয়ে মনোযোগী হয়ে উঠুক কোমলমতি শিক্ষার্থীরা  শপথ নিলেন দাউদকান্দির ১২ ইউনিয়ন পরিষদের নবনির্বাচিত মেম্বার লকডাউনের কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি, পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে পরিস্থিতি কুমিল্লার লাকসামে প্রবাসীর স্ত্রীর আত্মহত্যা : চিরকুটে স্বামীকে দায়ী শপথ নেওয়ার পর মেঘনার ইউপি চেয়ারম্যান জাকির কারাগারে দাউদকান্দিতে আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘর পরিদর্শনে বিভাগীয় কমিশনার সমৃদ্ধ দেশ গড়তে প্রয়োজন সুশিক্ষা : উপজেলা চেয়ারম্যান টুটুল দেশে-বিদেশে ষড়যন্ত্র চলছে : স্থানীয় সরকারমন্ত্রী নাসিক নির্বাচনে আইভীর হ্যাটট্রিক জয় মুরাদনগরে ওরা তিনজন বিনাভোটে নির্বাচিত মেম্বার দাউদকান্দি সার্কেলে সহকারি পুলিশ সুপার ফয়েজ ইকবালের যোগদান কুবির নতুন উপাচার্য অধ্যাপক মঈন দাউদকান্দিতে দেশিয় পিস্তলসহ যুবক গ্রেফতার ফেনসিডিল ইয়াবা ও গাঁজাসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার মুরাদনগরে ইউপি নির্বাচনে অংশগ্রহণকারি প্রার্থীদের সাথে প্রশাসনের মতবিনিময় আইনশৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণে পুলিশের নিরপেক্ষ ভূমিকা রাখার আহ্বান দাউদকান্দি আ’লীগ নেতৃবৃন্দের উন্নত দেশে মানুষ আইন-বিধিনিষেধ সহজেই মেনে চলে : নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী

২০২১ সাল : কুমিল্লায় ১১০ খুন

সাদিক মামুন
  • আপডেট টাইম শনিবার, ১ জানুয়ারী, ২০২২
  • ৩৬ দেখা হয়েছে
# ২০২১ সালের আলোচিত ও চাঞ্চল্যকর কাউন্সিলর সোহেল হত্যাকান্ড।ফাইলফটো

শতাধিক খুনের ঘটনার মধ্যদিয়ে ২০২১ সাল পার করেছে শিক্ষা, সংস্কৃতি ও প্রাচীন ঐতিহ্যের জেলা কুমিল্লা। একের পর এক খুনের ঘটনায় আতঙ্কিত সময় পার করেছে সাধারণ মানুষ। রাজনৈতিক নেতৃত্বের আধিপত্য, পারিবারিক কলহ-দ্বন্ধ, পরকীয়া, যৌতুকের কারণ, মাদকের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করায়, অপহরণ ও মুক্তিপণ না পেয়ে প্রতিমাসে জেলায় গড়ে ৯টি খুনের ঘটনা ঘটেছে। একটি খুনের মামলার তদন্ত শুরু না হতেই আরেকটি খুন। এভাবেই ২০২১ সালে প্রায় ১১০টি খুনের ঘটনা ঘটেছে কুমিল্লায়।

কুমিল্লা জেলা পুলিশের অপরাধচিত্রের তথ্যানুসারে এবছর জানুয়ারি থেকে ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত কুমিল্লার ১৭টি থানা এলাকায় ১১০টি খুনের ঘটনা ঘটেছে। এসব খুনের মধ্যে আলোচিত ও চাঞ্চল্যকর মামলায় অন্তর্ভুক্ত হয়েছে এমন সংখ্যাও কম নয়। এর মধ্যে কয়েকটি আলোচিত খুনের মধ্যে ২২ নভেম্বর কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের ১৭ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও প্যানেল মেয়র সৈয়দ মো. সোহেল ও তার রাজনৈতিক সহকর্মী খুনের ঘটনা দেশব্যাপী ব্যাপক আলোচিত হয়েছে। নিজ কার্যালয়ে দুর্বৃত্তদের পিস্তলের ৯টি গুলিতে প্রাণ হারান সোহেল। এঘটনায় মামলার প্রধান আসামীসহ তিন জন পুলিশের সঙ্গে “বন্দুকযুদ্ধে” নিহত হয়।

২০২১ সালে কুমিল্লায় কাউন্সিলর সোহেল ও হরিপদ সাহা জোড়া খুনের ঘটনা ছাড়াও আরও তিনটি জোড়া খুনের ঘটনা ঘটে। এর মধ্যে ৯ ফেব্রুয়ারি বিকেলে পারিবারিক কলহের জের ধরে কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলার মোকাম ইউনিয়নের হালগাঁও গ্রামে শাশুড়ি বানু বিবি (৫০) ও স্ত্রী ফারজানা আক্তারকে (২৫) কুপিয়ে হত্যা করে ফারজানার স্বামী লোকমান।

এর আগের দিন ৮ ফেব্রুয়ারি পারিবারিক কলহের জের ধরে কুমিল্লার নাঙ্গলকোট উপজেলার আদ্রা দক্ষিণ ইউনিয়নের পুজকরা গ্রামে মা ও ভাবিকে কুপিয়ে হত্যা করেন এক ব্যক্তি।

পারিবারিক কলহের জেরে আরও একটি জোড়া খুনের ঘটনা ঘটে ৫ সেপ্টেম্বর।কুমিল্লা সদরের সুবর্ণপুরে বৃদ্ধ শ্বশুর এবং শাশুড়িকে কম্বলচাপা দিয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যা করেন তাদের পুত্রবধূ শিউলি (২৫)।

এছাড়াও পরকীয়ার ঘটনা দেখে ফেলায় ৫ বছর বয়সী কন্যা সন্তানকে খুন করে এক পাষন্ড পিতা।৭ নভেম্বর কুমিল্লার দেবিদ্বারে চাঞ্চল্যকর শিশু ফাহিমা হত্যাকান্ডের এ ঘটনা ঘটে।

চান্দিনা উপজেলার গল্লাই ইউনিয়নের বসন্তপুর গ্রামে ঘটে আরেক চাঞ্চল্যকর খুন। ভাতিজাদের ফাঁসাতে ১ অক্টোবর রাতে চৌদ্দ বছর বয়সী নিজ কন্যা সালমা আক্তারকে গলাকেটে হত্যা করে পিতা সোলেমান।

মাদক ব্যবসায় বাধা দেয়ায় ৪ মে সদর দক্ষিণ উপজেলার মথুরাপুর সীমান্তবর্তী এলাকায় আলমগীর হোসেন নামে এক যুবককে কুপিয়ে হত্যা করা হয়। নাঙ্গলকোট উপজেলার পশ্চিম জোড্ডায় ২৭ জুন এক তরুণীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের পর খুন করে দুবৃর্ত্তরা। কুমিল্লার তিতাস উপজেলার ভিটিকান্দি ইউনিয়নের নারায়নপুর উত্তরপাড়ায় ১৪ জুলাই বিরোধের জের ধরে ছোট ভাইয়ের হাতে বড় ভাই খুন হয়। মাদক সংক্রান্ত বিরোধের জেরে ২৩ ফেব্রæয়ারি সদর উপজেলার চাঁনপুর গ্রামে ছুরিকাঘাতে বাচ্চু মিয়ার ছেলে জনি (৩০) নামে এক যুবক খুন হয়।

এসব খুনের ঘটনা ছাড়াও বছরের শেষের দিকে ইউপি নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সহিংস ঘটনাও উদ্বেগজনক পর্যায়ে পৌঁছে। এ নির্বাচন ঘিরে সংঘাতের ঘটনায় মেঘনা ও চৌদ্দগ্রাম উপজেলায় হত্যাকান্ডের ঘটনা ঘটেছে।

কুমিল্লার বিশিষ্টজনরা বলেছেন, সামাজিক অস্থিরতা, নেতত্বের দ্বন্ধ ও অপরাধ প্রবণতা বেড়ে যাওয়ায় জেলায় খুনোখুনির ঘটনা ঘটেছে। বিষয়টি উদ্বেগজনক। তাই সমাজে বসবাসকারিদের একে অন্যের প্রতি সহনশীল হতে হবে। সম্পর্কের উত্তরণ ঘটাতে হবে। এছাড়াও আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতির উন্নয়ন, টহল ব্যবস্থা জোরদার এবং সাধারণ মানুষের অভিযোগ, পরামর্শ আমলে নেয়ার জন্য থানাগুলোতে নাগরিক সেবার মান বাড়াতে পারলে সামাজিক নিরাপত্তার বিষয়টি গুরুত্ব পাবে এবং তাতে বিচ্ছিন্নভাবে সংঘটিত হত্যাকান্ড ও অন্যান্য অপরাধ প্রবনতা কমে আসবে। সর্বোপরি সব ধরনের অপরাধ দমনেই আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সদা তৎপর থাকবে, এটাই কাম্য। অপরাধীদের দ্রুত বিচার সম্পন্ন করার বিষয়টিও খুব গুরুত্বপূর্ণ। অপরাধীর শাস্তি নিশ্চিত করার পাশাপাশি মানুষের নৈতিক অবক্ষয় রোধেও নিতে হবে কার্যকর পদক্ষেপ।

Last Updated on January 1, 2022 9:38 am by প্রতি সময়

শেয়ার করুন
এই ধরনের আরও খবর...

বিস্তারিত জানতে ছবিতে ক্লিক করুন।

themesba-lates1749691102
error: Content is protected !!