মঙ্গলবার, ১৭ মে ২০২২, ০৬:০৩ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
ভোরের কাগজের সম্পাদক প্রকাশসহ ৫জনের বিরুদ্ধে রিফাতের ১০ কোটি টাকার মানহানী মামলা হজযাত্রীদের পাসপোর্টের তথ্য হালনাগাদের বিষয়ে করণীয় নির্বাচিত হলে নাগরিক সুবিধাসম্পন্ন পরিকল্পিত ওয়ার্ড গড়ে তুলবো : নাজমুল হাসান চৌধুরী কামাল মাদক, সন্ত্রাস ও চাঁদাবাজমুক্ত ওয়ার্ড গড়তে চাই : রাজিউর রহমান রাজিব দাউদকান্দিতে দুর্বৃত্তের হামলায় সাংবাদিক আহত আবার মেয়র না হলে আগের মতো মাঠের রাজনীতিতে ফিরবেন সাক্কু অবশেষে পাঠকের হাতে আসিফের জীবনীগ্রন্থ ‘আকবর ফিফটি নট আউট’ বুড়িচংয়ে পূর্ব শত্রুতার জেরে প্রতিপক্ষের হামলায় ৫জন আহত ব্রাহ্মণপাড়ায় বিদেশী মদ সহ একজন গ্রেফতার ব্রাহ্মনপাড়ায় বিদ্যুৎপৃষ্ট হয়ে যুবক নিহত বুড়িচংয়ে চলছে উচ্চ ফলনশীল সাতটি বোরো ধানের জাত সম্প্রসারণ কার্যক্রম নির্বাচনকালীন কুসিক পরিচালনার দায়িত্ব পাচ্ছেন প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা রিফাতেই আশাবাদী আ’লীগ, সাক্কুর গলারকাঁটা কায়সার আওয়ামী লীগ গায়েবী সরকার, একদিন গায়েব হয়ে যাবে : কুমিল্লায় বিক্ষোভ সমাবেশে মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল বুড়িচং সীমান্তে মাদক বিরোধী  টাস্কফোর্সের বিশেষ অভিযান বিশ্ববাজারে স্বর্ণের দামে বড় পতন নগরীর বারপাড়া থেকে মাদক ব্যবসায়ী আটক মুরাদনগরে বালি বোঝাই ট্রাকের ভারে ভেঙে পড়লো বেইলীব্রীজ নৌকার মাঝি রিফাত : নেটিজনদের শুভেচ্ছা কুসিকে নৌকার মাঝি রিফাত

রিফাতেই আশাবাদী আ’লীগ, সাক্কুর গলারকাঁটা কায়সার

সাদিক মামুন
  • আপডেট টাইম রবিবার, ১৫ মে, ২০২২
  • ১৭০ দেখা হয়েছে

কুমিল্লা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগ দলীয় মেয়র প্রার্থী আরফানুল হক রিফাত বলেছেন, আমরা সবাই জাতির জনকের আদর্শের সৈনিক, জননেত্রী শেখ হাসিনার কর্মী এবং আওয়ামী লীগ পরিবারের লোক। এটাই আমাদের বড় পরিচয়। আর এ পরিচয়ের মর্যাদা, সম্মান রক্ষার লড়াইয়ে কুমিল্লার গণমানুষের নেতা এমপি আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহারের দিকনির্দেশনায় কুমিল্লা সিটিতে নৌকার জয়ের জন্য সবাই ঐক্যবদ্ধভাবে নিবেদিত হয়ে কাজ করবেন বলে আমি প্রত্যাশা করছি।

শুক্রবার দলীয় মনোনয়ন পাবার পর রাতে গণমাধ্যমের কাছে এ প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন কুমিল্লা মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও দলীয় প্রার্থী আরফানুল হক  রিফাত।

তার এই প্রত্যাশা কুমিল্লা নগরীতে আওয়ামী লীগের তৃণমুল রিফাতকে নিয়ে আগামীর নগরপিতার স্বপ্ন দেখছেন। আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা রিফাতকে নিয়েই আশাবাদী। কেননা ১৯৯১ সালের পর বিলুপ্ত কুমিল্লা পৌরসভার দুইবারের চেয়ারম্যান বর্তমানে কুমিল্লা-৬ আসনের এমপি ও কুমিল্লা মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি আকম বাহাউদ্দিন বাহারের পর স্বাধীনতার স্বপক্ষের ও আওয়ামী লীগের কোন প্রার্থী পৌরসভা বা সিটি করপোরেশনের চেয়ারম্যান বা মেয়র নির্বাচিত হতে পারেননি। এবারে আওয়ামী লীগের তৃণমুলের প্রতি দলীয় সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আস্থার বহি:প্রকাশ হিসেবে দেখা হচ্ছে আরফানুল হক রিফাতের মনোনয়নকে।

অন্যদিকে সিটি নির্বাচনকে সামনে রেখে কুমিল্লা বিএনপিতে দ্বন্দ্ব, কোন্দলের বিষয়টি আবারও দলের নেতা কর্মী ও ভোটারদের মাঝে স্পষ্ট হয়ে ওঠেছে।গত সিটি নির্বাচনে কুমিল্লা জেলা বিএনপির দুই গ্রুপ হাজী আমিন উর রশিদ ইয়াছিন ও মনিরুল হক সাক্কুর মধ্যে যে বিভেদ দ্বন্দ্ব ছিল তা ধানের শীষ প্রতীকের স্বার্থে মিটমাট হয়ে গেলেও সাক্কু দ্বিতীয় বার মেয়র নির্বাচিত হওয়ার পর হাজী ইয়াছিন গ্রুপকে কোনঠাসা করতে মরিয়া হয়ে ওঠেন। ২০১৭ সালের ৩০ মার্চ বিএনপি থেকে ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে নির্বাচনে জয়ী হওয়ার পর তিনি দলীয় কার্যক্রমে একেবারেই অনুপস্থিত ছিলেন। উল্টো সরকারি দলের শীর্ষ নেতার সঙ্গে তাঁর ঘনিষ্ঠতার বিষয়টি সামনে আসে। দলের ভাইসচেয়ারম্যান তারেক রহমান সম্পর্কেও একটি অনলাইন পোর্টালে সাক্ষাতকার দিয়ে ব্যাপক সমালোচিত হন। গত বছরের অক্টোবরে কেন্দ্রীয় বিএনপির এক সভায় অনুপস্থিত থাকায় মনিরুল হক সাক্কুকে কেন্দ্রীয় বিএনপির কার্যনির্বাহী কমিটি থেকে বাদ দেওয়া হয়। তবে জেলা বিএনপির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদকের পদ রয়েছে তাঁর। এবারের নির্বাচনে বিএনপি অংশগ্রহণ করবে না বলে দলের শীর্ষ নেতাদের সিদ্ধান্ত রয়েছে।এ অবস্থায় মনিরুল হক সাক্কু দল থেকে অব্যাহতি নিয়ে স্বতন্ত্র পদে নির্বাচন করার জন্য মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন।

এবিষয়ে একটি গণমাধ্যমকে মনিরুল হক সাক্কু জানান,কুমিল্লা নগরের উন্নয়ন কাজের জন্য এমপি বাহাউদ্দিন বাহারের সঙ্গে তার সম্পর্ক রয়েছে। এর বাইরে আর কিছু নয়। তিনি নির্বাচনের জন্য মাঠ গুছিয়ে রেখেছেন। আর মনোনয়ন ফরমও সংগ্রহ করেছেন।

এদিকে মনিরুল হক সাক্কুকে ঠেকাতে এবারের নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন কুমিল্লা মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি ও কেন্দ্রিয় কমিটির সহসাংগঠনিক সম্পাদক নিজাম উদ্দীন কায়সার। তিনি কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ও কেন্দ্রিয় বিএনপির ত্রাণ ও পুনর্বাসন সম্পাদক আমিন উর রশিদ ইয়াছিনের শ্যালক। তরুণ এ নেতা ইতিমধ্যে জেলা নির্বাচন কার্যালয় থেকে মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন। কায়সারের প্রার্থী হওয়ার বিষয়টি বেশ জোরালোভাবে দেখছেন বিএনপির নেতাকর্মীরা। তাদের মতে, সাক্কুর কাছে দলের নীতি আদর্শ উপেক্ষিত। তাই এবার দল নির্বাচনে না এলেও দলের লোকের পরিবর্তন চায় তৃণমুল নেতাকর্মীরা।এদিকে জেলার রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের মতে তরুণ নেতৃত্ব নিজাম উদ্দিন কায়সার যদি প্রার্থী হয় তাহলে এটা বিএনপির বর্তমান মেয়র মনিরুল হক সাক্কুর জন্য গলারকাঁটা হয়ে দাঁড়াবে। কেননা কুমিল্লায় বিএনপি ও এর অঙ্গ সংগঠনের একটি বড় অংশ কায়সারের প্রতি আস্থাশীল।

প্রার্থী হওয়ার বিষয়ে নিজাম উদ্দীন কায়সার বলেন, আমি মনিরুল হক সাক্কুকে ঠেকাতে প্রার্থী হচ্ছি না। জয়ের জন্য নির্বাচন করবো। বিএনপি নির্বাচনে অংশ না নিলেও দলের সকল পর্যায়ের নেতাকর্মী ও সাধারণ ভোটারের একটি বড় অংশ আমাকে ভোট দেবে। আমি রাজপথের কর্মী। আমাকে ছোট বড় সবাই চেনে। দলের নীতি আদর্শ থেকে একবিন্দু সরে আসেনি। সবচেয়ে বড় কথা কুমিল্লা নগরবাসী এবার পরিবর্তন চায়। এই পরিবর্তন যারা চায় আমি তাদেরই একজন হয়ে নির্বাচনে অংশ নিচ্ছি।

Last Updated on May 15, 2022 12:17 am by প্রতি সময়

শেয়ার করুন
এই ধরনের আরও খবর...

বিস্তারিত জানতে ছবিতে ক্লিক করুন।

themesba-lates1749691102
error: Content is protected !!