বৃহস্পতিবার, ০৭ জুলাই ২০২২, ০৯:৫৯ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
নগরভবনে মেয়র রিফাত কুমিল্লা শহরতলির চাঁনপুর মধ্যপাড়ার শাপলা বিদেশী মদসহ আটক এমপি বাহারকে সঙ্গে নিয়ে ধানমন্ডিতে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে কুসিক মেয়র রিফাত ও কাউন্সিলরদের শ্রদ্ধা নিবেদন চৌদ্দগ্রামে মোবাইল কেনা নিয়ে ছুরিকাঘাতে যুবক নিহত কুমিল্লা নগরীতে টোকেনে ঘুরে অবৈধ বাহনের চাকা মেয়র হিসেবে শপথ নিয়েছেন রিফাত -ভার্চুয়ালি শপথ পাঠ করান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সংযোগ সড়ক না থাকায় মুরাদনগরে কালভার্ট পারাপারে বাঁশের সাঁকোই ভরসা ভয়েস মেসেজে দেশবাসীকে ঈদুল আজহার শুভেচ্ছা জানালেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কুমিল্লা সদরে আমন চাষিদের মাঝে বিনামূল্যে বীজ ও সার বিতরণ প্যারোলে মুক্তি নিয়ে শপথ নেবেন নবনির্বাচিত কাউন্সিলর কিবরিয়া ও বাবু কুসিকের নবনির্বাচিত মেয়র ও কাউন্সিলরদের শপথ মঙ্গলবার ‘বিশ্ব বিরিয়ানি দিবস’পালন একজন মাহাথিরে পাল্টে গেছে মালয়েশিয়া আর শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বদলে যাবে বাংলাদেশ : এমপি বাহার দাউদকান্দিতে দুই পিলার ভেঙে ঝুঁকিতে সেতু চান্দিনায় সংবর্ধিত হলেন পরিবেশবান্ধব মতিন সৈকত দেবিদ্বারের সম্মেলন ঘিরে রাজী-কালাম গ্রুপের দ্বন্দ্ব কুসিকের মেয়র ও কাউন্সিলরদের শপথগ্রহণ মঙ্গলবার অটোচালকের খুনীদের গ্রেফতার ও বিচার চায় পরিবার সুনামগঞ্জে বন্যার্তদের পাশে কুমিল্লা দোকান মালিক সমিতি মুরাদনগরে ড্রেজার মেশিনের বিরুদ্ধে উপজেলা প্রশাসনের অভিযান

আমার সাথে ঘুরে আমার দেশ,ঘুরে লাল সবুজের পতাকা –পর্যটক আসমা আজমেরি

সাদিক মামুন
  • আপডেট টাইম শনিবার, ১ আগস্ট, ২০২০
  • ১৭২ দেখা হয়েছে

‘আমি আমার দেশের পাসপোর্টেই পৃথিবী ঘুরছি। আমার সাথে ঘুরছে আমার দেশ, আমার লাল সবুজের পতাকা। যে পতাকায় মিশে আছে মুক্তিযুদ্ধে জীবন উৎসর্গ করা ত্রিশ লাখ শহীদের রক্ত আর দুই লাখ মা-বোনের সম্ভ্রম হারানোর ইতিহাস।

২০০৯ সালে আমার এক বন্ধুর মা আমাকে নিয়ে টিপ্পনি কেটে বলেছিলেন মেয়েরা চাইলেই বিশ্বভ্রমণ করতে পারেনা। তুমিও পারবেনা। একথা থেকেই আমার মনে জেদ জন্ম নেয়। আর সেই জেদ ধরেই ২০০৭ সালে নিজের গহণা বিক্রি করে ২১ বছর বয়সে থাইল্যান্ড দিয়ে শুরু হয় আমার প্রথম ভ্রমণ। এরপর আমাকে আর পেছন ফিরে তাকাতে হয়নি।বাংলাদেশের সবুজ পাসপোর্টে গত দশ বছরে পৃথিবীর ১১৫টি দেশ ভ্রমণ করেছি।’

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ম্যাসেঞ্জার কলে দেশ ভ্রমণের খুঁটিনাটি নিয়ে অনলাইন নিউজপোর্টাল ‘প্রতিসময়’ এর সাথে উপরের কথাগুলো বললেন বাংলাদেশের অন্যতম নারী পর্যটক কাজী আসমা আজমেরি।

কতোটা চ্যালেঞ্জ, স্বপ্ন ও প্রেরণা নিয়ে শতাধিক দেশ ভ্রমণ করেছেন সেইসব অভিজ্ঞতা ধরেন তিনি। দেশ ভ্রমণের অভিজ্ঞতা তুলে ধরে ৩৩ বছর বয়সী আসমা আজমেরি বলেন, ২০০৭ সালে ২১ বছর বয়সে থাইল্যান্ড দিয়ে শুরু হয় তার ভ্রমণ।

তবে ২০১০ সালে ভিয়েতনামে তিক্ত অভিজ্ঞতার শিকার হোন। ভিয়েতনাম থেকে কম্বোডিয়ায় যেতে চাইলে ইমিগ্রেশনের লোকেরা বাংলাদেশি পাসপোর্ট দেখে তাকে কম্বোডিয়ায় যেতে অনুমতি দেয়নি এবং ২৩ ঘন্টা তাকে আটক করে রাখে। আবার একই বছরে বাংলাদেশি পাসপোর্ট হওয়ায় এবং ঢুকতে দিলে আর রিটার্ন করবেনা এমন সন্দেহে আসমাকে সাইপ্রাসে ইমিগ্রেশন জেলে ২৭ ঘন্টা আটকে রাখা হয়।

আর তখনই তিনি সিদ্ধান্ত নেন, বাংলাদেশি পাসপোর্টেই বিশ্ব ভ্রমণ করবেন। যাতে বাইরের দেশের মানুষ বাংলাদেশের পাসপোর্টকে সম্মানের চোখে দেখে, কোন বাংলাদেশিকে হয়রানি না করে। এরপর থেকেই মানসিক শক্তি নিয়ে পুরোদমে শুরু হয় আসমার পৃথিবী ভ্রমণের পথচলা।

একজন নারী পর্যটক হিসেবে আসমা আজমেরি উল্লেখযোগ্য দেশের মধ্যে ভারত, নেপাল, মালয়েশিয়া, সিঙ্গাপুর, হংকং, কম্বোডিয়া, ভিয়েতনাম, চীন, ইংল্যান্ড, ফ্রান্স, বেলজিয়াম, সাইপ্রাস, তুরস্ক, মিশর, মরক্কো, সংযুক্ত আরব আমিরাত, স্কটল্যান্ড, স্পেন, জার্মানি, পর্তুগাল, দক্ষিণ কোরিয়া, উত্তর কোরিয়া, শ্রীলঙ্কা, মালদ্বীপ, ইন্দোনেশিয়া, জাপান, অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, মেক্সিকো, কোস্টারিকা, কলম্বিয়া, ব্রাজিল, সুইডেন, ডেনমার্ক, ইতালি, হাঙ্গেরি, নরওয়ে, কুয়েত, কাতার, ফিলিপাইন, রাশিয়া, কানাডা, আজারবাইজান, তুর্কমেনিস্তান, উজবেকিস্তান, পর্তুগাল, গ্রীস ভ্রমণ করেন।

পর্যটক আসমা আজমেরি বলেন, দশ বছরে বাংলাদেশের সবুজ পাসপোর্টে তিনি জাতিসংঘের স্বীকৃত ১১৫টি দেশ ভ্রমণ সম্পন্ন করেছেন। তিনি বলেন, ভ্রমণের সময় তার সাথে থাকতো লাল সবুজের পতাকা। এ পতাকাই তার দেশপ্রেমের চিহ্ন। পৃথিবীর বিভিন্ন ভাষার মানুষের কাছে তিনি পজেটিভ বাংলাদেশের কথা তুলে ধরেছেন। শুনিয়েছেন বাংলার নারীদের পরিশ্রমের কথা।

শুনিয়েছেন বাংলাদেশের নারী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাত ধরে উন্নয়নের পথে এগিয়ে যাওয়া সোনার বাংলার কথা। আসমা বলেন, তিনি যেদেশেই পা রাখেন, সেখানে তার ভ্রমণ শুরু হয় সে দেশের জাদুঘর দর্শনের মধ্যদিয়ে। কেননা একটি দেশের সংস্কৃতি ও ঐতিহ্য সম্পর্কে জানতে জাদুঘর বড় ভূমিকা রাখে।

দেশ-বিদেশের পত্র-পত্রিকা, রেডিও টেলিভিশন সব মাধ্যমেই তিনি ভ্রমণের প্রসঙ্গ নিয়ে যখনই কথা বলেছেন তখনই বাংলাদেশকে আলোকিত করেছেন।আর শুধু নিজের ভ্রমণ নয়, বাংলাদেশের সবুজ পাসপোর্টধারিদের মানুষকেও ভ্রমণের জন্য অনুপ্রাণিত করছেন।

ব্যবসা প্রশাসনে স্নাতক এবং হিউম্যান রিসোর্সে এমবিএ সম্পন্ন করা পর্যটক আসমা আজমেরি দীর্ঘদিন নিউজিলান্ডে রিয়েল এস্টেট, স্টকএকচেঞ্জ ও রেডক্রসের মতো ইন্টারন্যাশনাল অর্গানাইজেশনে চাকরি করেছেন । বর্তমানে নিজেই একটি ট্রাভেল এজেন্সি পরিচালনা করছেন।

পর্যটক আসমা আজমেরি বলেন, ‘বিভাগীয় শহর খুলনায় জন্ম হলেও বাবা কাজী গোলাম কিবরিয়ার পৈত্রিক নিবাস কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামের চিওড়া কাজী বাড়ি। আর তাই খুলনার প্রতি যেমন জন্মের টান রয়েছে তেমনি  কুমিল্লার প্রতি শেঁকড়ের টান সবসময় আমি অনুভব করি।’

Last Updated on August 1, 2020 2:19 pm by প্রতি সময়

শেয়ার করুন
এই ধরনের আরও খবর...

বিস্তারিত জানতে ছবিতে ক্লিক করুন।

themesba-lates1749691102
error: Content is protected !!