রবিবার, ০৩ জুলাই ২০২২, ০৫:৩০ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
মুরাদনগরে ড্রেজার মেশিনের বিরুদ্ধে উপজেলা প্রশাসনের অভিযান নাচ গানে বর্ষার বন্দনা কুমিল্লা সাংস্কৃতিক জোটের কুসিক মেয়র রিফাতকে মহানগর ক্লাবের ফুলেল শুভেচ্ছা লাকসাম পৌর বিএনপির সম্মেলন কুমিল্লা শহরে করতে এসে বাধার মুখে চৈতী কালাম গ্রুপ মুরাদনগরে নারী মানবাধিকার কর্মীকে মারধরের ঘটনার মামলায় একজন আটক  ভুয়া কাবিননামায় স্ত্রী দাবী! ইংল্যান্ড প্রবাসীর সম্পদ দখলের অভিযোগ সংবাদসম্মেলনে খেলাধূলা এগিয়ে নিতে ও ভালো মানের খেলোয়াড় সৃষ্টিতে করণীয় বিষয়ে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দেওয়া হবে : মেয়র রিফাত মুরাদনগরে শালিসে নারী মানবাধিকার কর্মীকে মারধর ও শ্লীলতাহানি -সোশ্যাল মিডিয়ায় ভিডিও ভাইরাল কুমিল্লায় র‌্যাবের পৃথক অভিযানে গাঁজা ও ইয়াবাসহ দুই জন আটক  বিপুল ত্রাণসামগ্রী নিয়ে বন্যার্তদের পাশে আবিদপুর সিটিজি যুবসমাজ ডা. মল্লিকা বিশ্বাস আন্তর্জাতিক নারী সংগঠন ইনার হুইল ডিস্ট্রিক্ট চেয়ারম্যান নির্বাচিত শিক্ষার্থীদের অনিয়ম ও অপকৌশল চর্চার শিক্ষা না দেওয়ার আহ্বান উপজেলা চেয়ারম্যান টুটুলের কুমিল্লায় আইজিপি কাপ কাবাডিতে বান্দরবান চ্যাম্পিয়ন সদর দক্ষিণে প্রশাসনের হস্তক্ষেপে বাল্যবিয়ে বন্ধ, বিয়ে বাড়ির খাবার এতিমখানায় বিতরণ কুমিল্লায় ধর্ষণের অভিযোগে চাষী মামুন গ্রেফতার কুসিকের নব নির্বাচিত মেয়র কাউন্সিলরদের শপথ গ্রহণ ৪ জুলাই আজকের শিক্ষার্থীদের আগামী দিনে পরিবেশ সংরক্ষণে এ্যাম্বেসেডর হতে হবে -পরিবেশ দিবসের আলোচনা সভায় শওকত আরা কলি সেবার মান সন্তোষজনক পর্যায়ে উন্নীত না পর্যন্ত গ্রামীণফোনের সিম বিক্রিতে নিষেধাজ্ঞা বিএনপির কেন্দ্রীয় ত্রাণ তহবিলে কুমিল্লা মহানগর বিএনপির চেক হস্তান্তর লাকসামে বিদ্যুৎ স্পৃষ্ট হয়ে স্বামী-স্ত্রীর মৃত্যু

আজ দাউদকান্দি যুদ্ধ দিবস

মোহাম্মদ আলী শাহীন, স্টাফ রিপোর্টার (দাউদকান্দি) কুমিল্লা
  • আপডেট টাইম শুক্রবার, ২০ নভেম্বর, ২০২০
  • ২১৩ দেখা হয়েছে

কুমিল্লার দাউদকান্দি উপজেলার গোয়ালমারী-জামালকান্দি যুদ্ধ দিবস আজ। ১৯৭১ সালের ২০ নভেম্বরের এই দিনে গোয়ালমারী-জামালকান্দি যুদ্ধে শহীদ হন ১১ মুক্তিযোদ্ধা।
১৯৭১ সালের ২০ নভেম্বর ছিল পবিত্র ঈদুল ফিতর। ভোরে মসজিদ থেকে মোয়াজ্জিনের ফজরের আযানের ধ্বনি আসছে। কেউ ঘুমের ঘোরে অচেতন আবার কেউবা তৈরী হচ্ছে ফজর নামাজ আদায় করতে। ঠিক এমনি সময়ে দাউদকান্দি উপজেলার গোয়ালমারী-জামালকান্দি এলাকা হানাদার পাক বাহিনীর মর্টার সেলের শব্দে প্রকম্পিত হয়ে উঠে। গোয়ালমারীতে ছিল মুক্তিযোদ্ধাদের ক্যাম্প। সেই ক্যাম্পে হামলা করাই ছিল পাক হানাদারদের মূল উদ্দেশ্য।
ঈদের দিনে অপ্রস্তুত অবস্থায় ফেলে সহজেই মুক্তিযোদ্ধাদের গায়েল করা যাবে ভেবে পাক সেনারা হামলা করেছিল এই দিনে গোয়ালমারীতে। এ দিকে মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল কুদ্দুস সরকার দাউদকান্দি বাজারের আলম ডিলারের মাধ্যমে জানতে পেরেছিলেন ঈদের দিনে পাক সেনাদের গোয়ালমারী এলাকা আক্রমনের খবর। পাক সেনাদের মর্টার এবং রাইফেলের গুলির আওয়াজ শুনেই মুক্তিযোদ্ধারাও শুরু করে পাল্টা আক্রমণ। শুরু হয় উভয় পক্ষের সম্মুখ লড়াই। রণক্ষেত্রে পরিণত হয় গোয়ালমারী বাজার এবং জামালকান্দি এলাকা। ভোর সাড়ে ৪টা থেকে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টা পর্যন্ত একটানা ১৫ ঘন্টা যুদ্ধ চলে ।
দাউদকান্দি মুক্তিযোদ্ধাদের সাহায্য করার জন্য পশ্চিম দিকের কালীর বাজার এবং মোলাকান্দি এলাকা দিয়ে এগিয়ে আসেন মতলবের মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আব্দুল অদুদের নেতৃত্বে মুক্তিযোদ্ধাদের বিরাট বাহিনী। দাউদকান্দি এবং মতলবের মুক্তিযোদ্ধাগণ পাক হানাদার বাহিনী উত্তর দিকে পিছু হটে তাদের দাউদকান্দি সদরস্থ ডাক বাংলো ক্যাম্পে ফিরে যেতে চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়। শেষ দিকে উত্তর দিক থেকেও ঘিরে ফেলে মুক্তিযোদ্ধারা। কেউ বলেন এ যুদ্ধে ৭০ জন পাক সেনা নিহত হয়েছে। পরদিন সকালে জামালকান্দি, লামছড়ি, দৌলদ্দি, কালাইরকান্দি,ঢুনি নছরুদ্দি ও গোয়ালমারী এলাকায় ধানের মাঠ, খাল বিল এবং ডোবা নালায় পাক সেনাদের মৃত দেহ ভেসে উঠে। এ দিকে এ যুদ্ধে শহীদ হন সুন্দলপুর গ্রামের বীর মুক্তিযোদ্ধা রুহুল আমীন এবং রফারদিয়া গ্রামের মোস্তাক আহমেদ। এছাড়া শহীদ হন জামালকান্দি গ্রামের আব্দুর রহমান সরকার, সামছুন্নাহার ও তার কন্যা রেজিয়া খাতুন, সাইদুর রহমান ও আছিয়া খাতুন। কামাইরকান্দি গ্রামের গিয়াসউদ্দিন, সোনাকান্দা গ্রামের শহীদ উলাহ, রফারদিয়া গ্রামের নুরুল ইসলাম এবং গোয়ালমারী বাজারের ইয়াসমীন পাগলিনী। এই দিনটির কথা স্বরণ হলে এখনও এলাকাবাসীর গা শিউরে উঠে ।
সাবেক মৎস্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক নজরুল ইসলামের নেতৃত্বে এই যুদ্ধে যে সব মুক্তিযোদ্ধা বলিষ্ঠ ভূমিকা রেখেছিলেন তারা হলেন শহীদ রুহুল আমীন, শহীদ মোস্তাক আহমেদ, ওহাব সরকার, ফজলু সরকার, আব্দুল কুদ্দুস সরকার, খোরশেদ আলম আবুল হোসেন, কে.এম.আই খলিল, হুমায়ুন কবির,আবুল বাশার, শাহজাহান মিয়া, মতলবের আব্দুল অদুদ সহ আরো অনেকেই।
দিনটি উদযাপন উপলক্ষে দাউদকান্দি উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড গোয়ালমারী বাজারে মিলাদ মাহফিল ও স্বরণ সভার আয়োজন করেছে।

# দেশ-বিদেশের গুরুত্বপূর্ণ খবর জানতে প্রতিসময় (protisomoy) ফেসবুক পেইজে লাইক দিন।  এছাড়া protisomoy ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন ও বেলবাটন ক্লিক করে নতুন নতুন ভিডিও নিউজ পেতে অ্যাকটিভ থাকুন। 

Last Updated on November 20, 2020 12:35 pm by প্রতি সময়

শেয়ার করুন
এই ধরনের আরও খবর...

বিস্তারিত জানতে ছবিতে ক্লিক করুন।

themesba-lates1749691102
error: Content is protected !!