মঙ্গলবার, ১৮ জানুয়ারী ২০২২, ০৩:৫২ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
সদরের আমতলীতে র‌্যাবের অভিযানে  দুই মাদককারবারী আটক ৯৩ বছর বয়সে বিয়ে করলেন কুমিল্লার সর্বজন শ্রদ্ধেয় আইনজীবী মো. ইসমাইল কুমিল্লা জেলাজুড়ে করোনার উর্ধ্বগতি *বড় বিপদের আশঙ্কা দেখছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর* নতুন বছরে দৃঢ় মনোবল নিয়ে মনোযোগী হয়ে উঠুক কোমলমতি শিক্ষার্থীরা  শপথ নিলেন দাউদকান্দির ১২ ইউনিয়ন পরিষদের নবনির্বাচিত মেম্বার লকডাউনের কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি, পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে পরিস্থিতি কুমিল্লার লাকসামে প্রবাসীর স্ত্রীর আত্মহত্যা : চিরকুটে স্বামীকে দায়ী শপথ নেওয়ার পর মেঘনার ইউপি চেয়ারম্যান জাকির কারাগারে দাউদকান্দিতে আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘর পরিদর্শনে বিভাগীয় কমিশনার সমৃদ্ধ দেশ গড়তে প্রয়োজন সুশিক্ষা : উপজেলা চেয়ারম্যান টুটুল দেশে-বিদেশে ষড়যন্ত্র চলছে : স্থানীয় সরকারমন্ত্রী নাসিক নির্বাচনে আইভীর হ্যাটট্রিক জয় মুরাদনগরে ওরা তিনজন বিনাভোটে নির্বাচিত মেম্বার দাউদকান্দি সার্কেলে সহকারি পুলিশ সুপার ফয়েজ ইকবালের যোগদান কুবির নতুন উপাচার্য অধ্যাপক মঈন দাউদকান্দিতে দেশিয় পিস্তলসহ যুবক গ্রেফতার ফেনসিডিল ইয়াবা ও গাঁজাসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার মুরাদনগরে ইউপি নির্বাচনে অংশগ্রহণকারি প্রার্থীদের সাথে প্রশাসনের মতবিনিময় আইনশৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণে পুলিশের নিরপেক্ষ ভূমিকা রাখার আহ্বান দাউদকান্দি আ’লীগ নেতৃবৃন্দের উন্নত দেশে মানুষ আইন-বিধিনিষেধ সহজেই মেনে চলে : নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী

তারুণ্যের অনুপ্রাণন সৃজনশীল লেখক ইসমত আরা প্রিয়া

শিক্ষা-সাহিত্য ডেস্ক
  • আপডেট টাইম মঙ্গলবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী, ২০২১
  • ২৫২ দেখা হয়েছে
শিক্ষা,শিল্প,সাহিত্য মানুষকে চিন্তাশীলতার ভেতর দিয়ে নতুন চেতনার পথ দেখায়। অনলাইন নিউজপোর্টাল ‘প্রতিসময়’ এর শিক্ষা-সাহিত্য বিভাগে আপনিও যুক্ত হতে পারেন সৃজনশীল লেখা নিয়ে।সপ্তাহের শনিবার ও মঙ্গলবারের আয়োজনে আজকে শিক্ষা-সাহিত্য বিভাগে প্রকাশ করা হল দেশের সাহিত্যাঙ্গনে অল্প সময়ে তারুণ্যের মশাল জ্বালিয়ে তিনটি উপন্যাস ও একটি কবিতার বই লিখে সাড়া জাগিয়ে উদ্দীপ্ত ও রোমাঞ্চিত করে তোলা লেখক ইসমত আরা প্রিয়া ও তার নতুন উপন্যাস ‘যাবজ্জীবন’ নিয়ে কিছু কথা।   

তারুণ্যের অনুপ্রাণন সৃজনশীল লেখক ইসমত আরা প্রিয়া

তারুণ্যের একটি অংশ ফুলের সৌরভ ও কলমের শক্তির উপর নির্ভর করে ধীরে ধীরে আসছে সৃজনশীলতার কুঁড়েঘরে।যেখানে লেখালেখি করে নিজেকে তুলে ধরতে চায় সমাজ সচেতন ও তারুণ্যের অনুপ্রাণন মানুষ হিসেবে।দেশের সাহিত্যঙ্গনে তেমনি এক তারুণ্য ইসমত আরা প্রিয়া।যিনি লেখালেখিতে আত্মপ্রকাশের অল্প সময়ে আশা, উদ্দীপনার এবং সজীবতার দ্যুতি ছড়াচ্ছেন সাহিত্যাঙ্গনে।

ছোটবেলা থেকেই বই পড়ার প্রতি খুব বেশি ঝোঁক ছিল কুষ্টিয়ার মেয়ে ইসমত আরা প্রিয়ার।কুষ্টিয়া জেলার মিরপুর উপজেলার তালবাড়িয়া ইউনিয়নের রানাখড়িয়া গ্রামের মেয়ে প্রিয়া স্কুলের প্রাইমারি গন্ডি পেরিয়ে মাধ্যমিকে পা রাখতেই লেখালেখির নেশায় মেতে উঠে। দশম শ্রেনিতে পড়া অবস্থা শুরু হয় কবিতা উপন্যাস লেখালেখি।কলেজে পা রেখে সাহিত্য চর্চায় নিজেকে আরও মনোনিবেশ করে তুলে প্রিয়া।লেখালেখির ব্যাপারে প্রথমে পরিবার থেকে সমর্থন না মিললেও পরে তার একটি লেখা একটি প্রকাশনা সংস্থার ভালো লাগায় প্রিয়া তার বাবাকে নিয়ে ঢাকায় যান। এরপর আর থেমে থাকেননি প্রিয়া।

কুষ্টিয়া সরকারি কলেজ থেকে বাংলায় অনার্স ও মাস্টার্স ডিগ্রী অর্জন করা ইসমত আরা প্রিয়ার এ পর্যন্ত তার চারটি বই প্রকাশিত হয়েছে।

বিদ্যানন্দ প্রকাশনী থেকে প্রকাশিত ইসমত আরা প্রিয়ার প্রথম উপন্যাস ‘কান্নাগুলোর প্রার্থনা’ ২০১৯ সালের বইমেলা উপলক্ষে প্রকাশিত হয়।  জীবনের প্রথম উপন্যাসে প্রিয়া তার লেখায় এ উপমহাদেশের সমাজব্যাবস্থার চিরায়ত ঘটনা প্রবাহের ইঙ্গিত দিয়েছেন।আমাদের এই সমাজের নীরব কান্নাগুলো, যে কান্না কখনো কেউ দেখেনি, যে কান্নার শব্দ আমাদের সমাজের বেড়াজালে বিলীন হয়েছে- ঠিক সেই গল্পটার সরল ও সাবলীল উপস্থাপনা ছিল প্রিয়ার প্রথম উপন্যাস ‘কান্নাগুলোর প্রার্থনা’ বইটিতে।

২০২০ সালের একুশে বইমেলায় প্রকাশিত হয় প্রিয়ার দ্বিতীয় উপন্যাস ‘আওয়াজ’। বইটি প্রকাশ করে বিদ্যানন্দ প্রকাশনী। এছাড়াও একটি কবিতার বই ‘নীলপদ্ম’ প্রকাশিত হয় পুস্তক প্রকাশন থেকে।

এবছর করোনা মহামারির এই কঠিন সময়ে গত ১৫ ফেব্রুয়ারি প্রকাশনা সংস্থা অন্যধারা প্রকাশ করেছে প্রিয়ার চতুর্থ বই ‘যাবজ্জীবন’। তৃতীয় লিঙ্গের মানুষদের নিয়ে লেখা এটি সামাজিক উপন্যাস।

ইসমত আরা প্রিয়া তার ‘যাবজ্জীবন’ উপন্যাসটি নিয়ে ভূমিকায় লিখেছেন-‘এই জীবনে আমরা কেবল ততক্ষণ পর্যন্ত লড়ি, যতক্ষণ আমাদের হারানোর ভয় থাকে,বুকর ভেতর অসম্ভব কিছু চাওয়া থাকে।যেন কোন কিছুর বিনিময়ে নিজের ইচ্ছে ও স্বপ্নদের জন্য সবটুকু দিয়ে লড়ে যেতে হবে। লড়তে হবে তার জীবনের সকল চাওয়া পাওয়ার মানুষ তার জীবনের চাওয়া-পাওয়া, টিকে থাকার জন্য আসলেই অনেক কিছু করে। একের পর এক জটিল যুদ্ধ, এই যুদ্ধের শেষ নেই। জীবন মানেই শুধু বাঁচার জন্য অবিরাম লড়ে যাওয়া। অথচ একটা সময় যখন আর আমাদের হারানোর কিছু থাকে না, থাকে না অসম্ভবভাবে কোনো কিছু পাওয়ার কোনো বাসনা, তখন এই পৃথিবীতে বেঁচে থাকা নিয়ে আর কোনো ভয় থাকে না। সব চাওয়া পাওয়া হয়ে গেলে সব অজানা জানা হয়ে গেলে আমরা কেবল দি গুনি, দিন গুনি এক মৃত্যুতে বিলীন হবার। এই জীবন নামক কারাগার থেকে মুক্তির অনি:শেষ অপেক্ষায়।’

# দেশ-বিদেশের গুরুত্বপূর্ণ খবর জানতে প্রতিসময় ডট কম ( protisomoy.com) এ চোখ রাখুন এবং প্রতিসময় protisomoy ফেসবুক পেইজে লাইক দিন। এছাড়াও protisomoy ইউটিউব চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন এবং বেলবাটন ক্লিক করে নতুন নতুন সংবাদ ও বিনোদন ভিডিও পেতে আমাদের সাথে থাকুন। ধন্যবাদ

Last Updated on February 23, 2021 11:06 am by প্রতি সময়

শেয়ার করুন
এই ধরনের আরও খবর...

বিস্তারিত জানতে ছবিতে ক্লিক করুন।

themesba-lates1749691102
error: Content is protected !!